বিয়ের জন্য জমানো টাকায় দুস্থদের খাওয়াচ্ছেন ৩০ বছরের যুবক

পুণের অটোচালক অক্ষয় কোঠাওয়ালে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশে দেশে বিরাজ করছে অচলাবস্থা। সবকিছুতে নেমে এসেছে স্থবিরতা। এ অবস্থায় স্থগিত রয়েছে বিয়ের অনুষ্ঠানও। তাই বিয়ের জন্য জমানো পয়সা নিয়ে অসহায়-দুস্থদের পাশে দাঁড়িয়েছেন ভারতের পুণে রাজ্যের ৩০ বছরের যুবক অক্ষয় কোঠাওয়ালে।

অক্ষয় পেশায় একজন অটোচালক। এ বছরই তাঁর বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। বিয়ের অনুষ্ঠানে খরচ করবেন বলে তিনি দু’লক্ষ টাকা জমিয়েছিলেন। সেই টাকা দিয়ে পুণের রাস্তায় থাকা দুঃস্থ মানুষ ও পরিযায়ী শ্রমিকদের খাওয়াচ্ছেন তিনি। বন্ধুদের সহায়তায় রোজ প্রায় ৪০০ জনের খাবার বানাচ্ছেন অক্ষয়। তার পর নিজের অটোতে করে সেই খাবার বিলি করছেন দুস্থদের মাঝে।

বিয়ের জন্য জমানো টাকায় শুধু খাবার খাওয়ানো নয়, লকডাউনে পুণের বয়স্ক ও অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের যে কোনও দরকারে দিচ্ছেন অটো পরিষেবা। বিনামূল্যে তাঁদের চিকিৎসা কেন্দ্রে পৌঁছে দিচ্ছেন তিনি। পাশাপাশি করোনা কবল থেকে বাঁচার জন্য ছড়াচ্ছেন সচেতনতার বার্তা।

অক্ষয় কোঠাওয়ালে বলেছেন, ‘অটো চালিয়ে আমি প্রায় দু’লক্ষ টাকা জমিয়েছিলাম বিয়ের জন্য। ২৫ মে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লকডাউনের কারণে হবু স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে বিয়ে আপাতত বাতিল করে দিয়েছি। এই সময় অনুষ্ঠান করা ঠিক হবে না।’

বিয়েতে আনন্দ করার থেকে বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ানোকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন তিনি। অক্ষয় বলেছেন, আমি দেখেছি প্রচুর মানুষ এক বেলাও খেতে পাচ্ছেন না। বাঁচার মতো অবস্থাতেও নেই তাঁরা। তখন আমি ও আমার কিছু বন্ধু ঠিক করি, দিনমজুর শ্রমিক ও দুঃস্থদের আমাদের ক্ষমতা দিয়ে সাহায্য করব।

তিনি বলেন, তারপর আমরা একটা রান্নাঘর বানাই। সেখানেই সবজি আর চাপাটি তৈরি করছি। সেই খাবার আমার অটোতে করে মালধাক্কা চক, সঙ্গমওয়ারি, ইরাওদা এলাকায় মানুষের মধ্যে বিলি করছি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ