ঢাবি শিক্ষার্থীদের উপর হামলার বিচার দাবি

ঢাবি শিক্ষার্থীদের উপর হামলার বিচার দাবি
মানববন্ধন

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সারাদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) বেশকিছু শিক্ষার্থী হামলার শিকার হয়েছেন। এসব হামলায় জড়িতদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আজ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘গত শনিবার (ঈদুল-আজহার) দিন ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়ী ইউনিয়নে অসহায় ও দুস্থদের মধ্যে বিতরণ করার জন্য জনগণের কাছ থেকে কোরবানির মাংস সংগ্রহ করা হয়। মাংস বিতরণ শেষে প্রায় ২০ কেজি মাংস ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আজিজুর রহমান একজন সচ্ছল জনপ্রতিনিধি হওয়া সত্ত্বেও নিজের পারিশ্রমিক হিসেবে রেখে দেন।

বিষয়টি নিয়ে ইমরানের বাবা প্রতিবাদ করলে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ইমরান হোসেন ও তার ছোট ভাইয়ের উপর হামলা করা হয়। এতে মাথায় প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয়’।

মানববন্ধনে বক্তারা করোনা ভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে ঝিনাইদহে ডুজার সাধারণ সম্পাদক এইচ এম ইমরান হোসেন, সিলেটে ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা সাইদ খান শাওন, কক্সবাজারে সাজ্জাদ হোসেন সিহাবসহ সারাদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষার্থীরা হামলা শিকার হয়েছেন তাদের বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত করে হামলায় জড়িতদের আইনের আওতয় এন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাগীব নাঈম বলেন, ইমরানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষার্থী হামলার শিকার হয়েছে, তাদের ওপর হামলার দ্রুত বিচারের দাবি জানাচ্ছি। একই সাথে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় একটি ‘হেল্পলাইন’ বা ‘ওয়ান স্টপ সার্ভিস’ চালু করতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে আমাদের একটি দাবি থাকবে।

ডাকসু সাবেক সদস্য ও ছাত্রলীগ নেতা তানভীর হাসান সৈকত বলেন, দেশের এই করোনা পরিস্থিতিতে সারাদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যার যার অবস্থান থেকে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, বিভিন্ন অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছে। কিন্তু এটা দুঃখজনক যে, এই দুর্যোগ সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে গিয়ে, অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে তারা বিভিন্নভাবে হামলা মামলার শিকার হয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা এই রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে দাঁড়িয়ে তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং অতিদ্রত এসব হামলার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার নিশ্চিত করতে হবে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ