রাবির প্রাক্তন ছাত্রী তাহমিনা বাঁচতে চায়, দরকার ২ লাখ টাকা

রাবির প্রাক্তন ছাত্রী তাহমিনা বাঁচতে চায়, দরকার ২ লাখ টাকা
  © টিডিসি ফটো

করোনা আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ২০০৯-১০ ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থী তাহমিনা হক তিশার ফুসফুস মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ২ লাখ টাকা। পরিবারের পক্ষে তার চিকিৎসার খরচ বহন করা সম্ভব হচ্ছে না। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তার বাবাও বর্তমানে অসুস্থ।

জানা গেছে, গত জুন মাসের শেষের দিকে তাহমিনা হক তিশার করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসে। পরবর্তীতে চিকিৎসার মাধ্যমে করোনা নেগেটিভ আসলেও ফুসফুস মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তিনি বর্তমানে রাজধানীর বক্ষব্যাধি হাসপাতাল চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসকরা তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থানান্তরের পরামর্শ দিয়েছেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিশার বিভিন্ন পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য সর্বমোট ২ লাখ টাকা প্রয়োজন।

অসুস্থ তাহমিনা হক তিশার ছোট বোন আয়শা আক্তার তুলি রাবির ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি বলেন, ‘আমাদের বাবা ২০১৬ সালে স্ট্রোক করেন। তারপর থেকে একদম বিশ্রামে আছেন তিনি। তখন থেকে পরিবারের দায়িত্ব সম্পূর্ণ তিশা আপুর ওপর। আপু হঠাৎ করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় আমাদের পরিবারে অচলাবস্থা তৈরি হয়েছে। পরিবারের পক্ষে তার চিকিৎসার ব্যয় বহন করাও সম্ভব হচ্ছে না। তাই বোনকে বাঁচাতে বিত্তবানদের কাছে সাহায্য চাচ্ছি।’

তাহমিনা হক তিশা বলেন, ‘আমি বাঁচতে চাই। দয়া করে আমাকে একটু সাহায্য করুন।’

তাহমিনা হক তিশাকে সহযোগীতা করতে এ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। বিকাশ: 01704566063


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ