শিক্ষার্থী ভিসা নীতি

ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে ১৭ রাজ্যের মামলা

  © ফাইল ফটো

যুক্তরাষ্ট্রে যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস নেবে সেসব প্রতিষ্ঠানের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা বাতিলের যে নতুন নিয়মের ঘোষণা ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন দিয়েছে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে ১৭টি অঙ্গরাজ্য এবং ডিস্ট্রিক্ট ‍অব কলাম্বিয়া। খবর দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস এর।

সোমবার অঙ্গরাজ্যগুলো ম্যাসাচুসেটসে বোস্টন ডিস্ট্রিক কোর্টে ‘হোমল্যান্ড সিকিউরিটি’ এবং ‘ইমিগ্রেশন এন্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট’ বিভাগের বিরুদ্ধে এ মামলা করে। এর মধ্য দিয়ে বিদেশি শিক্ষার্থী ভিসার নতুন নিয়ম আটকে দেওয়া এবং তা কার্যকর হওয়া ঠেকানোর চেষ্টা নিয়েছে অঙ্গরাজ্যগুলো।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে যুক্তরাষ্ট্রের অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এরই মধ্যে ‘ফল’ সেমিস্টারের পুরো ক্লাস অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। তারপরই ট্রাম্প প্রশাসন ‍তাদের নতুন অভিবাসন নীতি ঘোষণা করে বলে, বিদেশি শিক্ষার্থীরা অনলাইনে ক্লাস করলে নিজ নিজ দেশে ফিরে গিয়ে ভার্চুয়াল ক্লাস করুক৷

অঙ্গরাজ্যগুলোর এটর্নি জেনারেলরা মামলায় বলেছেন, ট্রাম্প প্রশাসন কেনো এরকম অবিবেচকের মত সিদ্ধান্ত নিল তার কোনও ব্যাখ্যা দেওয়ার প্রয়োজন পর্যন্ত মনে করেনি।

তাছাড়া, প্রশাসনের এ নতুন নিয়মে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে হতে পারে অনেক বিদেশি শিক্ষার্থীকে। অনেক শিক্ষার্থীই এই মহামারীর মধ্যে নিজ দেশে ফিরে যেতে বাধ্য হবে। নিজ দেশে অনলাইনে ক্লাস করতে গিয়ে তাদের নানা সমস্যার মুখেও পড়তে হতে পারে।

মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে দেশটির অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই দীর্ঘমেয়াদে অনলাইন ক্লাস করার কথা ভাবছে।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা বাতিলের এই নীতির বিরুদ্ধে অঙ্গরাজ্যগুলোর মামলার আগেই এ নীতিকে ‘আত্মঘাতী’ বলে বর্ণনা করে হার্ভার্ড ও ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (এমআইটি) এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

ক্যালিফোর্নিয়া গত সপ্তাহেই এ নীতির বিরুদ্ধে মামলা করেছে। আর সোমবার মামলা করা রাজ্যগুলো হচ্ছে- কেনাটিকেট, ম্যারিল্যান্ড, ইলিনয়িস, পেনসিলভানিয়া, ভার্জিনিয়া, নেভাডা, মিনেসোটা, নিউ জার্সি, কলোরাডো, ডেলাওয়ার, ওরেগন, নিউ মেক্সিকো, রোড আইল্যান্ড, উইসকনসিন, ভারমন্ট, মিশিগান।

আন্তর্জাতিক শিক্ষা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে যুক্তরাষ্ট্রে বিদেশি শিক্ষার্থী গেছেন ১১ লাখ, যা ওই বছর দেশটির মোট শিক্ষার্থীর সাড়ে ৫ শতাংশ।

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে মার্কিন অর্থনীতিতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এসেছে চার হাজার ৪০০ কোটি ডলার। দেশের শিক্ষার্থীদের তুলনায় বিদেশি এ শিক্ষার্থীদের খরচও অনেক বেশি।

পাশাপাশি আবাসন খাতসহ স্থানীয় অনেক প্রতিষ্ঠানে খণ্ডকালীন, পূর্ণকালীন চাকরি করে দেশটির অর্থনীতিতে অবদান রাখছেন বিদেশি শিক্ষার্থীরা। অনলাইন ক্লাস হলে ভিনদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্তে হুমকির মুখে পড়েছে সেই অর্থসংস্থানের বিষয়টিও।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ