করোনায় পৌনে ৪ লাখ পরিবারকে সাহায্য করেছে ছাত্রদল

  © ফাইল ফটো

করোনাভাইরাসের কারণে বিপুল সংখ্যক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর খাদ্য সংস্থান করতেও বেগ পেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও ব্যক্তি মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় বিএনপি এবং এর বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনও নিম্ন আয়ের মানুষের ভোগান্তি লাঘবে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। বিএনপির নির্দেশনা মোতাবেক এ কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছে ছাত্রদলও। রাজধানী ঢাকা ছাড়াও বিভিন্ন জেলায় সংগঠনটির নেতাকর্মীরা ত্রাণ বিতরণ করছেন বলে জানা গেছে।

বিএনপি এবং এর অঙ্গ সংগঠন যে পরিমাণ ত্রাণ বিতরণ করেছে তার একটি সার-সংক্ষেপ প্রকাশ করেছে। তাতে দেখা গেছে, ছাত্রদল প্রায় পৌণে চার লাখ পরিবারকে চলমান করোনা পরিস্থিতিতে সহায়তা করেছে।

প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ১৪ লাখ ৭৯ হাজার ৪৪৮টি পরিবারকে সহযোগিতা করেছে ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা। সে মোতাবেক মোট উপকৃত হওয়া পরিবারের সংখ্যা তিন লাখ ৬৯ হাজার ৮৬২টি। এর মধ্যে বিভিন্ন আন্দোলনসহ নানা কারণে আহত ও নিহত নেতাকর্মীদের পরিবারও রয়েছে।

ত্রাণ বিতরণের পাশাপাশি তিন লাখ ৫০ হাজার ২৩০টি মাস্ক বিতরণ করেছে ছাত্রদল। এছাড়া দুই লাখ ৭০ হাজার ৩২৫টি সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাজার বিতরণ করা হয়েছে বলে তারা জানিয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে ছাত্রদলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ছাত্রদল সূত্র জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছে তারা। আগামী অন্তত ছয় মাস এভাবে ত্রাণ কার্যক্রম চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। এ সময়ে নিজেদের সক্ষমতা কমে গেলে বিএনপির সহযোগিতা নেয়া হবে বলে তারা জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে ছাত্রদেলের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, ‘যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে তা আনুষ্ঠানিক সাংগঠনিক কার্যক্রমের হিসাব। এর বাইরে আরও অসংখ্য ইউনিট নিজস্ব উদ্যোগে ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আনুষ্ঠানিক বিবরণী প্রকাশের সময় এ বিষয়ে সঠিক তথ্য পাওয়া যাবে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে ছাত্রদল। এজন্য সর্বোচ্চ অভিভাবকের সঙ্গে সবসময় যোগাযোগ রেখে চলা হচ্ছে।’

এ ব্যাপারে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে জানান, ‘দেশের যেকোন দুর্যোগে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অসহায় মানুষের পাশে আছে। এবারও করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় কাজ করছে ছাত্রদল।’

জানা গেছে, গতকাল সোমবার (১৮ মে) বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। সংগঠনের গুম, খুন ও নির্যাতিত ঢাকা মহানগরের ৩১টি পরিবারকে এসব ঈদ উপহার সামগ্রী দেওয়া হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আমিনুল হক, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ।

গত ১৪ মে ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এই স্লোগানে বিএনপির নির্দেশনা মোতাবেক অসচ্ছল মানুষের মাঝে ইফতারসামগ্রী বিতরণ করে ছাত্রদল। বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ শাখা ছাত্রদলের উদ্যোগে প্রায় ৮০০ জনের মধ্যে ওই ইফতার বিতরণ করা হয়।

গত ২৪ এপ্রিল করোনাভাইরাসের কারণে অসহায় অবস্থার মধ্যে পড়া রাজধানীর মহাখালী কড়াইল বস্তির অর্ধশতাধিক হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে ছাত্রদলের নেতার্কীরা। ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবকের নির্দেশে তিতুমীর কলেজ সংলগ্ন কলোম্বিয়া সুপার মার্কেটের সামনে মহাখালী করাইল বস্তির অর্ধশতাধিক হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে এসব খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

সম্প্রতি নিহত এক বিএনপি নেতার পরিবারের পাশে দাঁড়ান ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। জানা গেছে, বিগত ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনের দিন ধানের শীষে ভোট দিতে গিয়ে নিহত হন বিএনপি নেতা বাচ্চু মিয়ার। তার পরিবারের নিকট খাদ্য ও ইফতারসামগ্রী পৌঁছে দেন তারা। এভাবে করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকেই ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করছে ছাত্রদল।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ