শিবির পেলেই গণধোলাই দিতে বললেন রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি

  © টিডিসি ফটো

শিবির নেতাকর্মীদের পেলেই গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করার আহবান জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ছাত্রলীগ কর্মী ও খুলনার কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে এ আহবান জানান তিনি।

আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় দলীয় টেন্ট থেকে মিছিলটি শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদিক্ষণ শেষে একই জায়গায় সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। রাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু সমাবেশ পরিচালনা করেন।

গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘কিছুদিন পরেই আমরা মুজিব বর্ষ পালন করতে যাচ্ছি। তার কয়েক দিন আগেই আমার ভাইয়ের রক্তে রঞ্জিত করা হয়েছে এই স্বাধীন বাংলার ভূখণ্ডকে। ইতিমধ্যে আমরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়কে শিবিরমুক্ত করেছি। কিন্তু এই ভূখণ্ডকে তারা আবারো রক্তে রঞ্জিত করার পায়তারা করছে।’

তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার যখন উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে তখনি একাত্তরের পরাজিত শক্তিরা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের, যারা প্রগতিশীলতার চর্চায় বিশ্বাসী, যারা সাধারণ শিক্ষার্থীদের দাবি আদায় নিয়ে কথা বলে, সে সংগঠনের নেতাকর্মীদের কুপিয়ে জখম করেছে, নিহত করেছে।’

এসময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি শিবিরও থাকবে না উল্লেখ করে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, ‘আমি ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে বলে দিতে চাই, সে আঘাতটি যেনো আমিই প্রথমে করি। আমাদেরও অনেক নেতাকর্মীকে তারা হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে, পঙ্গুত্ব বরণ করে তারা জীবন-মরণের সাথে পাঞ্জা লড়ছে। আমাদের রক্ত কি রক্ত নয়? আর কতো রক্ত গেলে জামাত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হবে? 

তিনি বলেন, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে যদি শিবিরকে আপনারা কোথাও পান, তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে সোপর্দ করবেন। আমাদেরকে জানাবেন আমরা যেনো তাৎক্ষণিকভাবে তার জবাব দিতে পারি।’

সমাবেশে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি, সহ-সম্পাদকসহ বিভিন্ন হল, বিভাগ ও ইউনিটের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ