ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে নজর থাকবে যাদের দিকে

এবার নতুন ক্রিকেট বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নের দেখা পাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্ব। ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড আজ মুখোমুখি হচ্ছে ঐতিহাসিক লর্ডসে। বিশ্বকাপের মূল যারা পারফর্মার তাদের অনেকেই ফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছাতে পারেননি।

ফাইনালে লর্ডসে যারা মাঠে নামতে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে আলোচনায় থাকছেন কারা? আসর শুরুর আগেই ইংল্যান্ড একটা ধাক্কা খায়। জেসন রয়ের দীর্ঘদিনের ওপেনিং পার্টনার অ্যালেক্স হেলস ড্রাগ নেয়ার দায়ে নিষিদ্ধ হন জাতীয় দল থেকে। জেসন রয়ের সাথে কে ব্যাট করবেন? জনি বেয়ারস্টো? নাকি জো রুট?

শেষ পর্যন্ত একাদশে ঢুকলেন বেয়ারস্টো। প্রথম ম্যাচে ইমরান তাহিরের স্পিন বুঝতে না পেরে কোনো রান ছাড়াই আউট হয়ে যান। সেই ম্যাচে জয় পায় ইংল্যান্ড। এরপর পাকিস্তানের সাথে ৩২, শ্রীলঙ্কার সাথে শুণ্য রানে এবং অস্ট্রেলিয়ার সাথে ২৭ আউট হন বেয়ারস্টো। এই তিন ম্যাচেই ইংল্যান্ড হেরে যায়।

বাংলাদেশের সাথে ৫১, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে ৪৫ ও আফগানিস্তানের সাথে তার রান ৯০, এই তিন ম্যাচে জয় পায় ইংল্যান্ড। আর শেষ দুই ম্যাচ যখন ইংল্যান্ডের জন্য বাঁচা-মরার লড়াই, তখন জনি বেয়ারস্টো করলেন দুটি সেঞ্চুরি। ভারতের বিপক্ষে ১১১, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১০৬ রান।

নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপের শুরু করে শ্রীলঙ্কাকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে। মাত্র ১৩৬ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ১ জুনের সেই ম্যাচে ২২ রানে ৩টি উইকেট নেন লোকি ফার্গুসন। গতি ও সুইংয়ে নিয়ন্ত্রণ এনে প্রতিপক্ষকে ব্যস্ত রেখেছেন লোকি ফার্গুসন। তখনো বিশ্বকাপের শুরু কেবল, তাই আলোচনায় আসার মতো কিছু ছিল না।

এরপর আফগানিস্তানের সাথে নেন ৩৭ রানে ৪ উইকেট। তবে নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময় যখন এলো, অর্থাৎ মাঝপথে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনটি করে গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নেন ফার্গুসন। গতি ও নিয়ন্ত্রণ মিলিয়ে বিশ্বকাপের অন্যতম সফল বোলার ফার্গুসন। ৭ ম্যাচে ১৭টি উইকেট নিয়েছেন লোকি। ইকোনমি রেট পাঁচের নিচে, গড় সাড়ে আঠার। সেমিফাইনালেও ৪৩ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়েছেন লোকি।

টুর্নামেন্টের সেরা রান সংগ্রাহকদের তালিকার দিকে তাকালে উইলিয়ামসনের রান খুব বেশি মনে নাও হতে পারে। তবে তিনি যে রান করেছেন তাতে নিউজিল্যান্ড দল বিপদ থেকে মুক্তি পেয়েছে বেশ কয়েকবার। প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১০ উইকেটে জয় ছাড়া নিউজিল্যান্ডের উদ্বোধনী জুটি তেমন উল্লেখ করার মতো রান করতে পারেনি।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৭৯, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০৬ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৪৮ রান তোলেন নিউজিল্যান্ডের এই অধিনায়ক। মূলত প্রথম পাঁচ ম্যাচের জয় নিউজিল্যান্ডকে সেমিফাইনালে উঠতে সাহায্য করে। সেমিফাইনালেও ভারতের বিপক্ষে ৬৭ রানের একটি ইনিংস খেলেন যা পরবর্তীতে ম্যাচ জেতাতে সাহায্য করে।

ইংলিশ টেস্ট অধিনায়ক জো রুট এই বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান। ৯ ম্যাচে ৫০০ রান তুলেছেন তিনি। দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে হাল ধরেছেন এই ক্রিকেটার। ৯১.৭৪ স্ট্রাইক রেটে খেলেছেন তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে শতরান, আফগানিস্তানের সাথে ৮৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এছাড়া বিশ্বকাপের শুরুতেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৫১ রানের একটি ইনিংস খেলেন তিনি। একটা জায়গায় জো রুট সবার চেয়ে এগিয়ে, ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচে ১১টি ক্যাচ ধরেছেন তিনি। বিবিসি বাংলা।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ