৩ ফাইনালের দিন কাল

এক ইংল্যান্ড কেড়ে নিচ্ছে তিন ফাইনালের আলো। খেলাপাগল মানুষের জন্য এর চেয়ে ভালো সময় আর কি কিছু হতে পারে? ব্রিটিশ গ্রাঁ প্রিঁর ফর্মুলা ওয়ান, লন্ডনে পুরুষ এককের উইম্বলডন ফাইনাল এবং সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি হওয়া ক্রিকেট বিশ্বকাপ ফাইনাল। আগামীকাল এ ৩ টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া এরআগেও গত রবিবার একই দিনে অনুষ্ঠিত হয়েছে তিনটি ফুটবল ফাইনাল। ফ্রান্সে মহিলা ফুটবল বিশ্বকাপ, ব্রাজিলে কোপা আমেরিকা, যুক্তরাষ্ট্রে কনকাকাফ গোল্ডকাপ।

ইংল্যান্ডের খেলাপাগল বিশাল জনগোষ্ঠী পড়েছে মধুর সমস্যায়। ফর্মুলা ওয়ানের বর্তমান এক নম্বর তারকা ব্রিটেনের লুইস হ্যামিল্টন। রবিবার ব্রিটিশ গ্রাঁ প্রিঁতে নামবেন ফর্মুলা ওয়ানে ইংল্যান্ডের শ্রেষ্ঠত্ব ফিরিয়ে আনতে।

হ্যামিল্টন অবশ্য নিজেও বিরক্ত, ‘আমি বুঝতে পারলাম না, কেন অর্গানাইজাররা একই দিনে তিনটি বড় ইভেন্টের ফাইনাল দিয়েছে। আমি আশা করি ভবিষ্যতে এমন ভুল তারা করবে না। প্রতিটি বড় খেলা সপ্তাহব্যাপী হলে ভালো হতো। মানুষের জন্য সুবিধা হতো। এখন তারা রবিবার ঘরে বসে চ্যানেল পরিবর্তন করে সব খেলা দেখতে হবে।’

ইংল্যান্ডের চ্যানেল ফোর, ব্রিটিশ গ্রাঁ প্রিঁর থেকে ফর্মুলা ওয়ান সরাসরি দেখানোর কথা ছিল। কিন্তু ইংল্যান্ড ফাইনালে উঠায় তারা কিছুটা পরিবর্তন আনে। চ্যানেলটি ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ সরাসরি দেখাবে। এর মাঝে ফর্মুলা ওয়ানের খেলাও দেখাবে। ঘরের মাঠে রেকর্ড অর্ধডজন শিরোপা জেতা হ্যামিল্টন অবশ্য চাইছে অন্য চ্যানেলে যাতে ক্রিকেট সম্প্রচার করে।

ফর্মুলা ওয়ানের সমর্থকদের উপস্থিতিও বেশি আশা করছেন এই ফর্মুলা ওয়ান তারকা, ‘আমি এখানে ইংল্যান্ডের মানুষকে গর্বে ভাসিয়ে পতাকা উঁচিয়ে ধরতে এসেছি। এই ট্র্যাকে ইংল্যান্ডের হয়ে প্রতিযোগিতা করা আমার জন্য সম্মানের। তাই এ বছরের ব্রিটিশ গ্রাঁ পি্রঁ অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সমর্থকদের উপস্থিতি নিয়ে আমি সন্দিহান। কারণ তাদের জন্য এই সপ্তাহটা বিশেষ কিছু। তবে সমর্থকদের উপস্থিতি ট্র্যাকে আমার জন্য নেশার মতো কাজ করে।’

গত ৩০ জুন অস্ট্রিয়ান গ্রাঁ প্রিঁতে পঞ্চম অবস্থান নিয়ে শেষ করে মার্সিডিজের প্রতিনিধিত্ব করা হ্যামিল্টন। তবে এবার মাঠে উপস্থিত থাকবে পরিবার। আর তাই দারুণ কিছু উপহার দেওয়ার ইচ্ছে এই তারকার, ‘আমরা দল হিসেবে অনেক উন্নতি করেছি। শেষবার অস্ট্রিয়া আমাদের জন্য কিছুটা কঠিন ছিল। তবে আশা করছি এবার ভালো কিছু হবে। আর আমার পুরো পরিবার মাঠে উপস্থিত থাকবে। কাছের মানুষের সমর্থনে আশা করছি চোখজুড়ানো রেস উপহার দিতে পারব।’


মন্তব্য