হাবিপ্রবি ফুটবল কাপে চ্যাম্পিয়ন ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে হাবিপ্রবি ফুটবল ক্লাবের আয়োজনে হাবিপ্রবি ফুটবল কাপ-২০১৯ টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকাল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের তাজউদ্দিন আহমেদ হলের খেলার মাঠে কৃষি অনুষদ বনাম ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ মধ্যে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে খেলায় দুটি দলই জেতার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেন ,কিন্তু কেউ কাউকে ছাড় না দেয়ায় ১-১ সমতা রেখেই দুই দলকে মাঠ ছাড়তে হয়। নির্দিষ্ট সময় শেষে দু-দলের মধ্যে ট্রাইফিগার অনুষ্ঠিত হয়। এতে দু-দল ৫টি করে বল কিক মারার সুযোগ পায়। তবে এ সুযোগকে হাত ছাড়া করেননি ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ । ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের গোলকিপার সাঈদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে প্রতিপক্ষ পরাজয় মেনে নিতে বাধ্য হয় । এতে করে ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ ৫-৪ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে । অপর পক্ষে কৃষি অনুষদ একটি ভুলের কারনে ১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়ে রানার্স-আপ হয়। পরাজিত হলেও আজকের খেলায় সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন কৃষি অনুষদের সাজিদ এবং টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের নিশাত ও সেরা গোল রক্ষক নির্বাচিত হন রিয়াদ ।

খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ডা. মো.ফজলুল হক(বীর মুক্তিযোদ্ধা) , প্রক্টর প্রফেসর ড. মো. খালেদ হোসেন,জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগের চেয়ারম্যনা প্রফেসর ড.আব্দুল গাফফার মিয়া ,শরীরচর্চা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. মো.শাহ্‌ মইনুর রহমান, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর মোহাম্মদ রাজিব হাসান ও ছাত্রলীগ নেতা আকিভ আলভী রাসেল, ধনেশ পাল, রিয়াদ খান,শফিকুল ইসলাম সজল , পল্লব হোসেন রাঙ্গা,মিঠু,আতিক সহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ ।

হাবিপ্রবি ফুটবল ক্লাবের সভাপতি শরীফ মাহমুদ এর সঞ্চালনায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ডা. মো.ফজলুল হক(বীর মুক্তিযোদ্ধা), আকিভ আলভী রাসেল,রিয়াদ খান প্রমুখ ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বলেন, খেলাধুলার প্রতি আমার অন্যরকম ভালোবাসা কাজ করে । যে কারনে এই বৈরী আবহাওয়াতেও আমি খেলা দেখতে এসেছি । খেলাধুলা মানুষের শরীর ও মনকে সুস্থ রাখে,মাদক ও নেশা থেকে দূরে রাখে । পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধুলা ও সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত হতে হবে। খেলাধূলার মানোন্নয়নে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ খেলার মাঠ সংস্কার, খেলাধূলার সরঞ্জাম সরবরাহসহ সব ধরণের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে। তোমরা নিজেকে একজন ভালো খেলোয়ার হিসেবে গড়ে তুলে শুধু হাবিপ্রবিকে নয় ,আগামীতে যেন বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পার সে আশাবাদ ব্যক্ত করছি ।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ভিসি কাপ আয়োজনের দাবি জানালে তা মঞ্জুর করা করা হয়। উল্লেখ্য, ফুটবল টুর্নামেন্টে মোট ৮টি দল অংশ গ্রহন করে।


মন্তব্য