আইএলও স্কলারশিপ পেলেন ববি ছাত্র মোরশেদ

আইএলও স্কলারশিপ পেলেন ববি ছাত্র মোরশেদ
  © টিডিসি ফটো

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) ফুলফ্রি স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চশিক্ষার জন্য জার্মানি যাচ্ছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) শিক্ষার্থী মো. মোরশেদ বিন ইসলাম। এ বছর তিনি একাই বাংলাদেশ থেকে এ স্কলারশিপ পেয়েছেন।

মো. মোরশেদ বিন ইসলাম ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, উচ্চশিক্ষার স্বপ্নটা শুরু হয় পাঁচ বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শুরু দিকে। কিছু বড় ভাইদের সাথে পরিচয় শুরু হয় যারা তখন সরকারি স্কলারশিপ নিয়ে বিদেশে লেখাপড়া করতেন। এ বিষয়ে তাদেরকে অনুপ্রাণিত হয়েছি।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে জার্মানিতে তিনি মাস্টার্স ডিগ্রী করবেন লেবার পলিসিস্ অ্যান্ড গ্লোবালাইজেশন বিষয়ে। ১ বছরের মাস্টার্স প্রোগ্রামে তিনি ১ম সেমিস্টার পড়বেন। জার্মানির কেসেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং ২য় সেমিস্টার পড়বেন বার্লিন স্কুল অব ইকোনোমিকস এন্ড ল তে। তাঁর এই প্রোগ্রাম শুরু হবে এ বছরের পহেলা অক্টোবর থেকে, চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ সাল পর্যন্ত।

এই স্কলারশিপের অধীনে তিনি মাসিক উচ্চ বৃত্তি পাবেন। এছাড়াও আবাসন ব্যয়, দৈনদিন খরচ, স্টুডেন্ট ফি, স্বাস্থ্যবিমা, ইন্টারনেট অ্যাকসেস, রাউন্ড ট্রিপ এয়ার ফেয়ার, পড়ালেখার উপকরণসহ যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা পাবেন। ৪২ দিনের ইন্টার্ন করতে পারবেন বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে এবং ৩ দিনের ট্রেইনিং সুযোগ পাবেন সুইজারল্যান্ডের জেনেভা আইএলওর হেডকোয়াটারে।

এর আগে তিনি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগে বিবিএ সম্পন্ন করেছেন। সরকারী সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক এবং অক্সফোর্ড মিশন হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক শিক্ষা শেষ করেন।

নিজের অনুভুতির প্রকাশ করতে গিয়ে মোরশেদ বলেন, আমার বাবা তার জীবনের শেষ সময় হাসপাতালের বেডে আমার হাত ধরে বলছিল, ‘বাবা তোমাকে অনেক দূর যেতে হবে’। আল্লাহর রহমতে আজ আমি তার স্বপ্ন পুরন করতে পেরেছি। সবার কাছে আমি ও আমার পরিবারের জন্য দোয়াপ্রার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও সহকারী অধ্যাপক আব্দুুল্লাহ আল মাসুদ বলেন, সিফাত মোরশেদ আমাদের ২০১৪-১৫ সেশনের শিক্ষার্থী। এই ব্যাচটা খুবই পটেনশিয়াল ব্যাচ। ওদের ৮ সেমিস্টারে আমি ৭টি কোর্স নিয়েছি। ওদের আমি ভালো করেই চিনি। সিফাতকে আরো বেশি ভালো করে জানি যখন ও আমার সাথে ইন্টার্নশিপ করে। তখন দেখতাম ও খুবই এনার্জেটিক একটি ছেলে।

তিনি বলেন, সিফাতের এই স্কলারশিপ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা শুধু বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্র্যান্ডিং নয়, বাংলাদেশকেও ব্র্যান্ডিং করবে।

বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. ছাদেকুল আরেফিন ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, এটা নিশ্চয় অত্যন্ত আনন্দের এবং আশাবাঞ্জক খবর। আমরা তাকে অভিনন্দন জানাই। তাঁর এই স্কলারশিপের মধ্যে দিয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হলো।

উপাচার্য বলেন, আগামীতেও আরো অনেক শিক্ষার্থী বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ ধরনের আন্তর্জাতিক সম্মাননা পাবে। আমরা শিক্ষার্থীদের কাছে সে আশা রাখছি।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ