জেএসসিতে দেশসেরা বরিশাল

পাশের হার ৯৭ দশমিক ০৫

ফলাফলে উল্লসিত শিক্ষার্থীরা  © সংগৃহীত

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে অংশ্রগহণকারী পরীক্ষার্থী ও পাশ করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা গত বছরের তুলনায় ছিল কম। শুধু কাকতলীয়ভাবে পাশের হার হয়েছে একই। গত বছরের মতো এবারও জেএসসিতে বরিশাল বোর্ডে পাশের হার ৯৭ দশমিক ০৫ ভাগ।

এবারের ফলাফলে পাশের হারে দেশসেরা হয়েছে বরিশাল শিক্ষাবোর্ড। বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মদ ইউনুস মঙ্গলবার এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় ২০১৯ সালের জেএসসি পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অরুন কুমার গাইন। তার আগে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বোর্ড চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা নবাগত সচিব প্রফসর মো. বাহরুল আলম।

বোর্ড থেকে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, এবারের জেএসসিতে অংশগ্রহণকারী মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৯৮৫ জন। পাশ করেছে ১ লক্ষ ১০ হাজার ৬১৯ জন। জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর ৪ হাজার ৯৪৮ জন।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জানান, এবার জিপিএ- ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী গতবছরের চেয়ে ৪২ জন বেশী। এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা গতবছরের চেয়ে ৮৭২ জন কম ছিল। পাশ করার শিক্ষার্থীর সংখ্যাও গত বছরের চেয়ে ৮৫০ জন কম। তারপরও পাশের হার একই হাওয়াকে ‘কাকতালীয়’ বলে আখ্যায়িত করেছেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক। শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ায় আগের চেয়ে বেশী মনোযোগী এবং প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও উত্তরপত্র মূল্যায়নে মানোন্নয়ন হওয়ার পাশের হার কমেনি বলে অভিমত দেন তিনি।

বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এবারও পাশের হারে এগিয়ে আছে মেয়েরা। মেয়েদের পাশের হার ৯৭ দশমিক ৪৯ এবং ছেলেদের পাশের হার ৯৬ দশমিক ৫৩। জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতেও মেয়েদের সংখ্যা ছেলেদের চেয়ে প্রায় দ্বিগুন। জিপিএ-৫ পেয়ে পাশ করেছেন ৩ হাজার ১৪৮ জন মেয়ে এবং ১ হাজার ৮০০ জন ছেলে।

কেন এবার সারাদেশের মধ্যে বরিশাল শিক্ষাবোর্ড পাশের হারে সেরার কৃতিত্ব অর্জনের বিষয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মদ ইউনুস বলেন, এর কৃতিত্ব ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবকদের।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ