সিলেট বোর্ডে জিপিএ-৫ এগিয়ে বিজ্ঞান বিভাগ

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৭৬ হাজার ৮৯৮ জন, এরমধ্যে পাশ করেছে ৫১ হাজার ১২৪ জন। পরীক্ষায় সবচেয়ে বেশী অংশগ্রহণ করেছে মানবিক বিভাগ থেকে আর সবচেয়ে কম অংশগ্রহণ করেছে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে। তবে সবচেয়ে বেশী পাশের হার বিজ্ঞান বিভাগের। এ বিভাগের পাশের হার ৮৮ দশমিক ৮১ শতাংশ।

অন্যদিকে জিপিএ-৫ ও সবচেয়ে বেশী পেয়েছে বিজ্ঞান বিভাগ। এ বিভাগের ৯৪৪ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন। এরমধ্যে ৫শ’ ৭৭ জন ছেলে এবং ৩শ’ ৬৭ জন মেয়ে শিক্ষার্থী এ বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। আর সবচেয়ে কম জিপিএ পেয়েছে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে দেয়া পরীক্ষার্থীরা। এ বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৯ জন। এর মধ্যে ৩৬ জন ছেলে ২৩ জন মেয়ে শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

অন্যদিকে মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৯১ জন। এরমধ্যে ৩১ জন ছেলে শিক্ষার্থী এবং ৬০ জন মেয়ে। সবমিলিয়ে সিলেট শিক্ষা বোর্ডের ১ হাজার ৯৪ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। এরমধ্যে ছেলে ৬শ’ ৪৪ জন ছেলে এবং ৪৫০ জন মেয়ে শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের ফলাফল বিশ্লেষণ করে জানা যায়, বিজ্ঞান বিভাগে সর্বমোট পরীক্ষার্থী ছিল ১২ হাজার ৬৮৮ জন, ছেলে ৬ হাজার ৫৮৮ এবং মেয়ে ৬ হাজার ১০০ জন। এরমধ্যে পাশ করেছে ১১ হাজার ১৮৫ জন। এসব শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫ হাজার ৭৯৯ জন ছেলে ও ৫ হাজার ৩৮৬ জন মেয়ে শিক্ষার্থী। শতকরা হিসেবে বিজ্ঞান বিভাগে পাশের হার ৮৮ দশমিক ৮১ শতাংশ।

মানবিক বিভাগে ৫২ হাজার ৯৪ জন শিক্ষার্থী সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা দিয়েছে। এ বিভাগে ছেলেদের থেকে মেয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেশী। ৩০ হাজার ৬০৫ জন মেয়ে শিক্ষার্থীর বিপরীতে ছেলে শিক্ষার্থী ২১৪৮৯ জন। এসব শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩১ হাজার ১৫৯ জন। এরমধ্যে ছেলে ১১ হাজার ৮৩৫ জন আর মেয়ে ১৯ হাজার ৩২৪ জন। শতকরা হিসেবে মানবিক বিভাগে পাশের হার ৬০ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে সিলেট শিক্ষা বোর্ডে পরীক্ষা দিয়েছে ১২ হাজার ১১৬ জন। এরমধ্যে ছেলে ৬ হাজার ৮৭৪ জন এবং ৫ হাজার ২৪২ জন মেয়ে শিক্ষার্থী। এসব শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮ হাজার ৭৮০ জন। এরমধ্যে ৩ হাজার ৯২৪ জন মেয়ে শিক্ষার্থী এবং ৪ হাজার ৮৫৬ জন ছেলে। শতকরা হিসেবে এ বিভাগে পাশের হার ৭৩ দশমিক ২ শতাংশ।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ