কোটি টাকা উঠছে কার হাতে, জানা যাবে বিজয় দিবসে

সঞ্চালক খালেদ মুহিউদ্দিনের সাথে প্রীতীশ, শামীম, বেনজির ও মহসিন
সঞ্চালক খালেদ মুহিউদ্দিনের সাথে প্রীতীশ, শামীম, বেনজির ও মহসিন  © টিডিসি ফটো

শ্বাসরুদ্ধর প্রতীক্ষার পালা শেষ হবে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের রাত ১০টায়। কোটি টাকা জয়ের জন্য লড়বেন চার তরুণ-প্রীতীশ, শামীম, বেনজির ও মহসিন। ৪৭ বছরের বাংলাদেশের অর্জন, সাফল্য, ব্যর্থতা নিয়ে আড়াই মাস ধরে চলা জ্ঞানভিত্তিক কুইজ প্রতিযোগিতা বাংলাদেশ জিজ্ঞাসার চূড়ান্ত পর্বের দিকে নজর সবার। আইএফআইসি ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতায় ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভিতে সম্প্রচারিত হবে এ অনুষ্ঠান।

কুইজ শো বাংলাদেশ জিজ্ঞাসার চ্যাম্পিয়ন পাবেন এক কোটি টাকা পুরস্কার। প্রথম রানার আপ ২৫ লাখ টাকা, দ্বিতীয় রানার আপ ১৫ লাখ টাকা এবং তৃতীয় রানার আপ পাবেন ৫ লাখ টাকা।

আয়োজকরা জানান, আশি হাজার প্রতিযোগী থেকে চারজন লড়বেন কোটি টাকার পুরস্কারের জন্য। তাদের একজন প্রীতীশ। তার কথায়-‘দারিদ্র কী জিনিস সেটি আমার চেয়ে ভালো কেউ উপলব্ধি করতে পারেনি।’ বরিশালের ছেলে প্রীতীশ অষ্টম শ্রেণীতে পড়ার সময় তার বাবা প্যারালাইজড হয়ে যান। তারপর নিজের প্রচেষ্টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি অতিক্রম করে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা হয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ জিজ্ঞাসার চূড়ান্ত পর্বে তার সাথে লড়বেন নরসিংদীর ছেলে শামীম আহমেদ। নিজের লালিত স্বপ্ন পূরণে বাংলাদেশ জিজ্ঞাসা তার জন্য এক যুতসই প্লাটফর্ম উল্লেখ করে শামীম বলছেন, অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ স্যারের একটা কথা-মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়। এটা আমাকে আলোড়িত করেছে। তাই আমি আমার স্বপ্ন পূরণে লড়ছি। কি তাঁর স্বপ্ন? সেটি তিনি এখনই বলতে চাননি!  

ঝিনাইদহের ছেলে বেনজির আহমেদ চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেবেন। শৈশবে আগুনে পুড়ে যাওয়া বেনজির  মাদরাসায় পড়াশোনা করেছেন। উচ্চ মাধ্যমিকের পর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছেন। বেনজির মায়ের শিক্ষানুরাগী মনের দিকটি বিবেচনায় এনে তিনি ঝিনাইদহে নিজ গ্রামে গড়ে তোলেন পাঠাগার। এর জন্য তিনি নিজে মাটি কেটে পাঠাগারের  জায়গা ঠিক করেছেন। জীবনের অর্জন উপার্জন দিয়ে তিনি তার এলাকায় পাঠাগার ও শিক্ষা উন্নয়নে কাজ করবেন বলে জানান।

পিরোজপুরের ছেলে মহসিন আহমেদ বলছেন, গুণগত শিক্ষার মাধ্যমে সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা সম্ভব। তিনি পথ শিশু ও নারী শিক্ষার আলো পিরোজপুরে এবং ধীরে ধীরে সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে চান।  ইনডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের আজকের বাংলাদেশের সঞ্চালক খালেদ মুহিউদ্দিনের প্রশ্নের মুখোমুখি হন প্রতিযোগীরা। 

প্রসঙ্গত, সারাদেশের ৮০ হাজার প্রতিযোগী থেকে বিভাগীয় পর্যায়ে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে ৬৪ জনকে নির্বাচিত করার পর তাঁদের নিয়ে ১২ অক্টোবর থেকে শুরু হয় বাংলাদেশ জিজ্ঞাসার টেলিভিশন সম্প্রচার পর্ব। ৬৪ জন থেকে ৮ জনকে নিয়ে ৭ ও ৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত সেমি ফাইনালে নির্বাচিত হন ৪ জন।

 

 


মন্তব্য