যুক্তরাজ্যের দ্য ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড পেলেন খুবি ছাত্র ইউসুফ

খুবি
ইউসুফ মুন্না  © সংগৃহীত

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ ডিসিপ্লিনের (বিভাগ) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তরুণ উদ্যোক্তা ইউসুফ মুন্না কিশোরদের সৃজনশীলতার বিকাশে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ দ্য ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন।
তার প্রতিষ্ঠিত কিশোরভিত্তিক সৃজনশীল প্ল্যাটফর্ম রিফ্লেকটিভ টিনস’র এর মাধ্যমে সামাজিক পরিবর্তনমূলক বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য তাকে এই স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে।

ডায়ানা প্রিন্সেস অফ ওয়েলসের স্মৃতিতে প্রতিষ্ঠিত এই পুরস্কারটি তাদের দাতব্য প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তরুণদের দেওয়া হয়। সোমবার রাত ৯টায় ইউসুফ মুন্নাকে প্রতিষ্ঠান থেকে পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছেন দ্য ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রিন্সেস ডায়ানার নামে তার দুই ছেলে প্রিন্স হ্যারি ও প্রিন্স উইলিয়াম ব্রিটিশ রাজপরিবারের পক্ষ্যে ১৯৯৯ সালে এই পুরস্কারটি প্রবর্তন করেন।

ইউসুফ মুন্নাকে এই পুরস্কার দেওয়ার কারণ হিসেবে দ্য ডায়ানা অ্যাওয়ার্ডের প্রধান নির্বাহী টেসি ওজো বলেছেন, তার প্রতিষ্ঠান রিফ্লেকটিভ টিনস বিগত আট বছর ধরে চট্টগ্রাম, খুলনা ও ঢাকাসহ বাংলাদেশের নানান প্রান্তের একষট্টি হাজারেরও বেশী কিশোরের সৃজনশীল প্রতিভার বিকাশ এবং বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কাজে সম্পৃক্ত করতে পেরেছে। তাদের প্রোগ্রাম গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ব্রিজেস নট বরডার্স, ব্রেইনারি এবং ক্রিয়েটর্স কনভারজেন্স। উল্লেখ্য, তাকে এই পুরষ্কারের জন্য মনোনিত করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অলাভজনক সংস্থা অসোকাঃ ইনোভেটর ফর দ্য পাবলিক।

ইউসুফ মুন্না দ্য ডেইলি ক্যাম্পাসকে পুরস্কার পেয়ে নিজের অনুভুতি প্রকাশ করে বলেন, “এই প্রাপ্তি আমাদের জন্য অনেক বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। একই সাথে, আমাদের কাজের গন্ডিকে প্রসারিত করতে ও সামগ্রিক লক্ষ্যকে বাস্তবায়নে দলগত প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এই পুরস্কার আমার একার নয়। রিফ্লেকটিভ টিনসের সাথে সংযুক্ত সবাই এর অংশীদার বলে আমি বিশ্বাস করি।” তিনি আরও জানান, “আমার মা-বাবা সবসময় আমার উপর আস্থা রেখেছেন, উৎসাহ জুগিয়েছেন। তাই তাদেরকে এই পুরষ্কারটি উৎসর্গ করছি।”

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শরীফ হাসান লিমন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর এমন সফলতায় বলেন, সামাজিক উদ্যোক্তা হিসেবে ডিএস এর ইউসুফ মুন্নার এমন অর্জনে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা অনুপ্রাণিত হবে। একইসাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় তার এই অর্জনে গর্বিত।
জানা যায়, বিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই ডায়ানা পুরস্কারটি তরুণদের সম্মানে দেওয়া হচ্ছে। দৃষ্টি, সামাজিক প্রভাব, অন্যকে অনুপ্রাণিত করা, নেতৃত্ব এবং পরিষেবা যাত্রা এই পাঁচটি ক্ষেত্রের ওপর পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে মনোনয়ন দেওয়া হয়।এছাড়া এখানে ১৩টি ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড বিচারক প্যানেল রয়েছে যা প্রতিটি যুক্তরাজ্য অঞ্চল বা জাতির প্রতিনিধিত্ব করে এবং আরো তিনটি প্যানেল যুক্তরাজ্যের বাইরের দেশের প্রতিনিধিত্ব করে।

ইউসুফ মুন্না বর্তমানে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগে স্নাতক করছেন। তিনি ২০১৫ সালে টিএডেস্ক এ বক্তা হিসেবে আমন্ত্রিত হন। এছাড়াও ২০১৭ সালে প্রভাবশালী সামাজিক উদ্যোক্তাদের বৈশ্বিক নেটওয়ার্ক অশোকা ইয়াং চেঞ্জমেকারের অন্তর্ভুক্ত হন ইউসুফ। একই বছর সালে নেপালে অনুষ্ঠিত গ্লোবাল ইন্টারন্যাশনাল টিন কনফারেন্সেও আলোচক হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন তিনি। এছাড়া ভারতে অনুষ্ঠিত গ্লোবাল পার্টনারশীপ সামিট’১৭ ও ২০১৮ সালে ফিলিপিন্সে অনুষ্ঠিত অশোকা চেঞ্জমেকার এক্সচেঞ্জে প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ইউসুফ দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

 


মন্তব্য

x