চবিতে গাছ কাটার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা

'গাছ কাটা কাটা বন্ধ কর, প্রাণ প্রকৃতি রক্ষা কর' এই স্লোগানে গাছ কাটার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দেশের প্রায় ৬০ শতাংশ বনভূমি রয়েছে চট্টগ্রামে। আর এই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস গাছ-গাছালি ও পাহাড়ঘেরা অপরূপ সৌন্দর্যে ভরপুর। কিন্তু দুঃখের বিষয় বিগত তিন-চার বছর ধরে ক্যাম্পাসে নির্বিচারে গাছের পাশাপাশি পাহাড়ও কাটা হচ্ছে। অবিলম্বে যদি গাছ কাটা বন্ধ না হয়, প্রাকৃতিক বিপর্যয় নেমে আসবে এই ক্যাম্পাসে। তাই ক্যাম্পাসে গাছ কাটায় জড়িত শ্রমিকদের নয়, তাদেরকে দিয়ে যারা গাছ কাটিয়ে নিচ্ছে ওই চক্রের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে আহ্বান জানাচ্ছি।

বক্তারা আরো বলেন, গত কয়েক বছর ধরে যেভাবে গাছ কাটা হচ্ছে এভাবে চলতে থাকলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস আগামী পাঁচ বছরে বনভূমিশূন্য হবে। তাই বিগত কয়েক বছরে যারা গাছ কেটেছে তাদের চিহ্নিত করে শাস্তির আওতায় আনতে হবে। এ ছাড়া তাদের কাছ থেকে জরিমানা নিয়ে যে সংখ্যক বৃক্ষ নিধন করা হয়েছে, তার চেয়ে তিনগুণ বৃক্ষরোপণ করতে হবে।

এ সময় বক্তারা সকল শিক্ষার্থীর কাছে দিনে বা রাতে কোনো গাছবাহী গাড়ি দেখলে ওই গাড়ি আটকে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানাতে অনুরোধ করেন। মানববন্ধন শেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডির কাছে গাছ কাটা বন্ধ করা, গাছ কাটায় জড়িতদের শাস্তি ও সৌন্দর্যবর্ধনে বৃক্ষরোপণসহ সাত দফা দাবি দেন শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, গাছ ও পাহাড় কাটার কারণে গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর। নোটিশে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আগামী ৯ মার্চ পরিবেশ অধিদপ্তর কার্যালয়ে শুনানিতে হাজির হতে বলা হয়েছে। এর আগে গত সোমবার সরেজমিনে এসে ক্যাম্পাসের বায়োলজিকাল সায়েন্স এলাকার পেছনে বিভিন্ন জায়গায় অনুমোদন ছাড়া গাছ, পাহাড় ও টিলা কাটার প্রমাণ পায় পরিবেশ অধিদপ্তর।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ