চবিতে ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে সাংবাদিককে হেনস্তার অভিযোগ

  © ফাইল ফটো

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) জুনায়েদ হোসেন জয় নামের এক ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে সাংবাদিককে হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদ ঝুপড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (চবিসাস) পক্ষ থেকে তিন দিনের সময় দিয়ে প্রক্টর বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

ভুক্তভোগী সাংবাদিকের নাম জোবায়ের চৌধুরী। তিনি দৈনিক বণিক বার্তার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি ও চবিসাস'র সাধারণ সম্পাদক এবং অভিযুক্ত জুনায়েদ হোসেন জয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

অভিযোগ পত্রে বলা হয়, ‘গতকাল মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সোয়া ১টার দিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ঝুপড়িতে বন্ধুবান্ধবসহ দুপুরের খাবার খেতে আসেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরী। এসময় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপুর অনুসারী ছাত্রলীগ কর্মী ইতিহাস বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের জুনায়েদ হোসেন জয় এসে জোবায়েরকে আচমকা বেশ কয়েকবার 'তুই' সম্বোধন করে ধাক্কা দিয়ে সরতে বলে। কিন্তু এর কিছু সময় পর জুনায়েদ নামে ওই ছাত্রলীগ কর্মীর এক বন্ধু ওই খাবারের দোকানে আসলে সে আবারও জোবায়েরকে ধাক্কা দিয়ে উঠে যেতে বলে। এসময় জোবায়ের বিষয়টি জানতে চাইলে তাকে শার্টের কলার ধরে মারতে উদ্যত হয় ছাত্রলীগ কর্মী জুনায়েদ। ঘটনার সময় উপস্থিত ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতাকর্মীরা জোবায়েরের পরিচয় দিলেও জুনায়েদ ক্ষিপ্ত হয়ে ফের অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। একই সাথে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিকে নিয়েও বিরূপ মন্তব্য করে ওই ছাত্রলীগ কর্মী। চবিসাসের সাধারণ সম্পাদক ও সংগঠনের সাথে এমন ঘটনা অসম্মানজনক ও লাঞ্ছনাকর বলে আমরা মনে করি। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুষ্ঠু শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্ন করারও একটি অপ্রয়াসও বটে। ইতোপূর্বেও সাধারণ শিক্ষার্থী সহ বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের ওপর এমন নির্যাতন নিপীড়নের ঘটনা ঘটেছে। তার তার সুষ্ঠু বিচারও হয়েছে। তাই উক্ত ঘটনায় চবিসাসের সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরীরকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছনাকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী জুনায়েদ হোসেন জয়ের বিরুদ্ধে যথাযথ প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি। আগামী তিন (০৩) দিনের মধ্যে ন্যাক্কারজনক এ ঘটনায় দৃশ্যমান প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।’

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ কর্মী জুনায়েদ আহমেদ জয় দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, পুরো ঘটনাটা একটি ভুল বোঝাবুঝি। খুব বড় কোনো বিষয় না। একটু কথা-কাটাকাটি হয়েছে, এতটুকুই। উনি আমার সিনিয়র, আমি ওনাকে সরি বলেছি।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, তাদের দু'জনের সাথেই আমি ইতোমধ্যেই কথা বলেছি। যত দ্রুত সম্ভব ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এস এম মনিরুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, এ ধরনের ঘটনা অনভিপ্রেত। আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। যথাযথ ব্যবস্থা নিব।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ