ফলের ভিত্তিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি থাকছে না আর

  © ফাইল ফটো

আসন্ন ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ থেকে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের স্ট্যান্ডিং কমিটির ২৬২তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়সহ মোট ২৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্যরা বিষয়টির সাথে একমত পোষণ করেছেন। এরই প্রেক্ষিতে এসএসসি ও এইচএসসি’র ফলাফলের ভিত্তিতেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে দেশের বিভিন্ন কলেজের প্রথম বর্ষের ভর্তি প্রক্রিয়া আর থাকছেন না। এখন থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

আজ বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিষয়টি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে নিশ্চিত করেছে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ। তিনি বলেন, সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। তাই ভর্তিচ্ছুদের এ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হবে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত কলেজগুলোর স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর ভর্তির জন্যও এ প্রক্রিয়া প্রযোজ্য হবে।

জানা যায়, গত ৫ বছর যাবৎ এসএসসি ও এইচএসসি’র ফলাফলের ভিত্তিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্ট কলেজে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হতো। ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ প্রক্রিয়া চালু হয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে। এর আগে নিজস্ব প্রক্রিয়ায় ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর ব্যবস্থা ছিল। তবে এখন থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তে আবার পরীক্ষায় বসতে হবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদ বলছে, বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক শাখা থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীগণ উচ্চ মাধ্যমিকের পাঠ্যসূচির আলোকে প্রনীত পৃথক প্রশ্নপত্রে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। তিনটি শাখার বিভিন্ন বিষয়ে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের স্বল্প সময়ের মধ্যে অনলাইনে দরখাস্ত আহবান করা হবে। নভেম্বর মাসের মধ্যেই ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হবে। কেন্দ্রীয় মেধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত শিক্ষার্থীবৃন্দ সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের চাহিদার আলোকে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

যেসব বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষায় যাচ্ছে তার মধ্যে রয়েছে-রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চুয়েট, রুয়েট, ডুয়েট, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু), কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস্ (বিইউপি), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ