সাত কলেজ সমস্যা সমাধানে কাজ করছে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি  © ফাইল ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার মান বৃদ্ধি এবং শিক্ষক সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কলেজগুলোর অধ্যক্ষদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, সাত কলেজ সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। ভবিষ্যতে অধিভুক্ত বাকি সরকারি কলেজগুলোতেও কোন ধরণের সংকট থাকবে না।

বুধবার (০৪ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় কবি নজরুল সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে ৩০ফিট দেওয়ালে ভাস্কর জাহানারা পারভীনের তৈরি গ্রানাইট পাথরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চ ভাষণের ভাস্কর্য ‘মুক্তি সোপান’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, কবি নজরুল সরকারি কলেজে পরিবহন, শিক্ষক, একাডেমিক ভবন নির্মাণ এবং আবাসন সংকটসহ সব সমস্যা সমাধান করার হবে।


শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কলেজের পাশে পড়ে থাকা পরিত্যক্ত ডাফরিন হলের জায়গায় বহুতল ভবন নির্মাণ করে থানা শিক্ষা অফিসকে ২টি ফ্লোর এবং বাকি ফ্লোরগুলো কলেজকে দেয়া হবে। এছাড়াও কলেজে ১০তলা ভবন নির্মাণের জটিলতা নিরসন করে দ্রুত কাজ শুরু করা হবে। এর বাইরেও কলেজের পাশে পড়ে থাকা পরিত্যক্ত জায়গাগুলোতে একাডেমিক ভবন বা হল নির্মাণ করার আশ্বাস দেন শিক্ষামন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, কবি নজরুল সরকারি কলেজের শহীদ শামসুল আলম ছাত্রাবাসটিকে সংস্কার এবং দখল হয়ে যাওয়া জায়গাগুলো পুনরুদ্ধার করে বহুতল হল নির্মাণ করা হবে। এসময় কলেজের শিক্ষার্থীদের যাতায়াত সমস্যা সমাধানে পরিবহন সংকট নিরসনের কথাও বলেন তিনি।

এর আগে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর কবি নজরুল সরকারি কলেজের চৌকস বিএনসিসি ক্যাডেটরা মন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন। এছাড়াও মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

দেশে এই প্রথম কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চ ঐতিহাসিক ভাষণ গ্রানাইট পাথরে খোদাই করে ৩০ফিট দেওয়ালে ভাস্কর্য হিসেবে তুলে ধরায় কলেজের অধ্যক্ষকে অভিনন্দন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ৭ মার্চ ভাষণ ইউনেস্কো থেকে স্বীকৃতি পাওয়ার পর বিশ্বের দরবারে শ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

এসময় তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের নৈতিক-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে শিক্ষার্থীদের মাদক জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানান।

কবি নজরুল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দিন আহমেদ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. খালেদা নাসরীন ও শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মদ আকবর হুছাইন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ