জাবি উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনকারীরা এবার উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন এবং উপাচার্যের স্বাক্ষরিত অফিস আদেশসমূহকে প্রত্যাখ্যান করার ঘোষণা দেয়।

রবিবার (২০ অক্টোবর) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে থেকে ‘দুুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে এবং নতুন ও পুরাতন রেজিস্ট্রার ভবন ঘুরে শহীদ মিনারের পাদদেশে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের কুশপুত্তলিকাটি দাহ করা হয়।

বিক্ষোভ মিছিল ও কুশপুত্তলিদাহ কর্মসূচীতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ভিসির পদত্যাগ দাবি করে তাকে ‘ওয়ালাইকুম আসসালাম’ জানিয়ে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান করেন। তারা বলেন,‘স্বামী-সন্তান ফারজানা, জাহাঙ্গীরনগর চায় না’,  ‘দুর্নীতির আরেক নাম, ফারজানা ইসলাম’।

কুশপুত্তলিদাহের পূর্বে এক সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন,‘উপাচার্যকে আমরা প্রত্যাখান করেছি, অবাঞ্ছিত ঘোষনা করেছি তারপরও তিনি তার পদে বহাল আছে যা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য কলঙ্কস্বরূপ। কুশপত্তলিকা দাহের মাধ্যমে একজন স্বেচ্ছাচারী, দুর্নীতিবাজ, যৌন নিপীড়কের পৃষ্টপোষক উপাচার্যকে আমরা প্রত্যাখান করছি’।

উপাচার্যকে স্বৈরাচারী আখ্যা দিয়ে পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক খবির উদ্দিন বলেন,‘স্বৈরাচারী উপাচার্যের কর্মকান্ড দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। নির্লজ্জ ভিসির উপাচার্য পদে থাকার যোগ্যতা হারিয়েছে। কুশপুত্তলিকা পুড়ানো মানে উপাচার্যের অঙ্গ বেড়িয়ে যাওয়া। প্রশাসনিক সকল কাজকর্মে তিনি আজ থেকে অবাঞ্ছিত’।

এছাড়া সমাবেশে ছাত্র ইউনিয়নে সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম অনিক বলেন,‘নিজের ক্ষমতাকে টিকে রাখতে সকল স্তরে ভারপ্রাপ্ত দিয়ে বিশ্ববিদ্যায়ে স্বাভাবিক পরিবেশ নষ্ট করেছে। তার স্বৈরাচারিতার ফলে প্রশাসনিক কাঠামো ভেঙ্গে পড়েছে। প্রশাসনিক কার্যক্রমে তার সাক্ষর আজ থেকে অবাঞ্ছিত’।

পূর্বঘোষিত এ বিক্ষোভ কর্মসূচীতে আরো উপস্থিত ছিলেন, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনারুল্লাহ ভূইয়া, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক তারেক রেজা, অধ্যাপক নাজমুল করিম তালুকদার, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাইদ ফেরদৌস, অধ্যাপক জামালুদ্দিন রুনু সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক শাকিল উজ্জামান শাকিল, যুগ্ম আহ্বায়ক জয়লাল আবেদিন শিশির, যুগ্ম আহ্বায়ক আবু সাইদ প্রমুখ।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ