গ্রিনে ‘ইমার্জিং সেন্সিং অ্যান্ড কম্পিউটিং টেকনোলজিস টু অ্যাড্রেস কোভিড-১৯’ শীর্ষক বক্তৃতা

ইমার্জিং সেন্সিং অ্যান্ড কম্পিউটিং টু অ্যাড্রেস কোভিড-১৯ বক্তৃতা  © সংগৃহীত

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রযুক্তিকে কাজে লাগানোর বিকল্প নেই। নতুন প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে আধুনিক ডিভাইস স্মার্ট সেন্সর সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তার উন্নয়নে যেমন কাজ করছে; তেমনি তা দূরত্ব বজায় রেখে বৈশ্বিক এই মহামারি করোনা প্রতিরোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এজন্য দেশভিত্তিক তো বটেই, বৈশ্বিকভাবে প্রযুক্তি খাতে সহায়তা বাড়াতে হবে।

রোববার (২৮ জুন) রাজধানীর গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশে ‘ইমার্জিং সেন্সিং অ্যান্ড কম্পিউটিং টেকনোলজিস টু অ্যাড্রেস কোভিড-১৯' শীর্ষক দুই দিনব্যাপী এক অনলাইন বক্তৃতার প্রথম দিনে উপস্থিত বক্তারা এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইইইই স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ এবং আইইইই কম্পিউটার সোসাইটি স্টুডেন্ট চ্যাপ্টার এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির এতে স্বাগত বক্তব্য দেন। ‘স্মার্ট সেন্সিং অ্যান্ড রিমোট অ্যাকসেসিং টু অ্যাড্রেস কোভিড-১৯ চ্যালেঞ্জস’ বিষয়ে বক্তৃতা করেন- ইতালির ইউনিভার্সিটি অব ক্যালাবরিয়ার অধ্যাপক ড. জিয়ানকার্লো ফরটিনো, যুক্তরাষ্ট্রের বেল ল্যাবের আইওটি ডিরেক্টর ড. ফাহিম কাওছার এবং বেল ল্যাবের প্রিন্সিপ্যাল রিসার্চ সায়েন্টিস্ট ড. অখিল মথুর। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক ও ড. মুহাম্মদ আমিনুর রহমান এতে সেশন চেয়ার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বৈশ্বিক মহামারিসহ যে কোনো জরুরি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বরাবরই প্রযুক্তির ভূমিকা বেশি ছিল। ইতোমধ্যেই স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করে কোভিড-১৯–সংক্রান্ত বিভিন্ন গবেষণা তথা রোগ শনাক্তকরণ, থেরাপিউটিক ও ভাইরাস বিস্তারের বিভিন্ন দিক খোঁজা হচ্ছে। ভবিষ্যতের যে কোনো মহামারি রোধেও তা অব্যাহত থাকবে।’

অধ্যাপক ড. জিয়ানকার্লো ফরটিনো

বক্তৃতায় অধ্যাপক ড. জিয়ানকার্লো ফরটিনো স্মার্ট সেন্সরের নতুন অনুষঙ্গ হ্যান্ডসেক ডিটেকশন সিস্টেম নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘এটা এমন একটা সিস্টেম, যা মানুষের শরীরে থাকার পর সেটাই তাকে অন্যের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে বাধা দেবে।’ সামাজিক দূরত্ব ও দূর থেকে মানব শরীর কন্ট্রোলের নানা দিক নিয়েও আলোচনা করেন তিনি।

প্রসঙ্গত ‘ইমার্জিং সেন্সিং অ্যান্ড কম্পিউটিং টু অ্যাড্রেস কোভিড-১৯’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী এই লেকচার সিরিজের দ্বিতীয় পর্ব আগামী ৫ জুলাই একই প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। এদিন আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড বিগ ডেটা অ্যানালাইসিস টু অ্যাডড্রেডস কোভিড-১৯ চ্যালেঞ্জেস শীর্ষক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হবে। পুরো কার্যক্রমে সহায়তা করছে আইইইই কম্পিউটার সোসাইটি বাংলাদেশে চ্যাপ্টার।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ