কোভিড-১৯ মোকাবিলায় গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে অনলাইন সেমিনার

আধুনিক থেকে অত্যাধুনিক যুগে প্রবেশ করেছে বিশ্ব। সময় যত বেগবান হচ্ছে, আধুনিকতার পাশাপাশি বিজ্ঞানের চর্চাও বাড়ছে প্রতিনিয়ত। এক্ষেত্রে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় উদাহারণ হলো কোভিড-১৯। আধুনিকতার সুযোগ নিয়ে শক্তিশালী এই ভাইরাস কয়েক মাসের ব্যবধানে যেমন গোটা বিশ্বে ছড়িয়েছে, তেমনি বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে অতি দ্রুত এটা দমনের চেষ্টাও হচ্ছে।

বুধবার রাজধানীর গ্রিন ইউনভাির্সিটি অব বাংলাদেশে ‘সেন্সিং, কম্পিউটিং এ্যান্ড কমিউনিকেশন টু কন্ট্রোল কোভিড-১৯’ শীর্ষক এক অনলাইন সেমিনারে উপস্থিত বক্তারা এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর রিচার্চ ইনোভেশন এ্যান্ড ট্রান্সফরমেশন এই সেমিনারের আয়োজন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

মূল প্রবন্ধে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, করোনাভাইরাসের গতিবেগ ঘন্টায় ১০০ মাইল। হাচি-কাশিসহ নানাভাবে ছড়িয়ে থাকে এই করোনা। শুধু তাই নয়, একটা মানুষের হাচি থেকে ১ লাখ পর্যন্ত ড্রপলেট হতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখাই এটা থেকে বাঁচার প্রধান মাধ্যম। তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই এই ভাইরাস ২১২টি দেশে ছড়িয়েছে, আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৪২ লাখের বেশি মানুষ। এছাড়াও প্রায় দুই লাখ ৮৮ হাজার মানুষ এই ভাইরাসে মৃত্যুবরণ করেন।

ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে কোভিড-১৯ এর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। এ সময় তিনি করোনা মোকাবিলায় মানব শরীরে ডিভাইস লাগিয়ে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরের তাপমাত্রা, অন্যান্য গতিবিধি পরিমাপ বিজ্ঞানের নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন। এছাড়াও ‘ফিজিক্যাল সেন্সিং অ্যাপলিকেশন,’ ‘স্যোশাল সেন্সিং অ্যাপলিকেশন,’ ‘হিউম্যান সাইবার-ফিজিক্যাল সেন্সিং’সহ কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধের নানা উপায় তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামাদানী ফকির বলেন, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় গোটা বিশ্বই বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশও ভিন্ন নয়। তিনি বলেন, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসজনিত সংকট মোকাবিলায় সরকারের পাশাপাশি অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এমনকি ব্যক্তি বিশেষও এগিয়ে এসেছেন। আমরাও এক্ষেত্রে ভিন্ন নয়। তিনি উপস্থিত সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে করোনার বিস্তৃতি রোধে কাজ করার আহ্বান জানান।

সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারপার্সন ও শিক্ষক-কর্মকতারা অংশ নেন। সেমিনার শেষে উপস্থিত শ্রোতাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন সেমিনারের মূল প্রবন্ধকার ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ