বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

সংরক্ষিত তহবিল থেকে শিক্ষকদের বেতন দেয়ার দাবি

  © ফাইল ফটো

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতনের বিষয়টি ব্যবসায়িকভাবে না দেখে মানবিকভাবে দেখার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফোরাম। একইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংরক্ষিত তহবিল থেকে তাদের বেতন দেয়ার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

আজ সোমবার ফোরামের প্রধান সমন্বয়ক অধ্যাপক কামরুল হাসান মামুন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণ দেখিয়ে শিক্ষকদের বেতন না দেয়ার অথবা আংশিক দেয়ার অভিযােগ উঠেছে অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি জমা নিতে না পারা বা নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ থাকায় আর্থিক সংকটে রয়েছে বলে জানিয়েছেন এসব বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু ইউজিসির পক্ষ থেকে জানানাে হয়েছে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কমপক্ষে আগামী এক বছর শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন-ভাতা দেয়ার মতাে আর্থিক সঙ্গতি রয়েছে তাদের। তাছাড়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ধারা ৬ এর দফা ৯ অনুযায়ী প্রত্যেকটা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা সংরক্ষিত তহবিল থাকা বাধ্যতামূলক, যা এরকম আপদকালীন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন ও ব্যয় নির্বাহ করার জন্য রাখা হয় ( ধারা ৪৬ এর দফা ৩, ৪ ) ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, করোনাভাইরাসের সংকটকালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ব্যতিক্রম ঘটায় ফোরামের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি এবং শিগগির এ সমস্যার সমাধান না হলে রাষ্ট্রীয় আইনে ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি।

‘আমরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের পরিচালনা পরিষদকে অনুরােধ করবাে করােনার এই মহাদুর্যোগকালীন সময়ে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতনের বিষয়টিকে ব্যবসায়িকভাবে না দেখে মানবিকভাবে দেখার জন্য। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসিকে অনুরােধ করবাে যেন সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের (বাের্ড অব ট্রাস্টিজ ) সাথে আলােচনা করে দ্রুত বিষয়টির একটি সুষ্ঠু সুরাহা করা হয়।’— অনুরোধ বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফোরামের।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ