করোনা: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কার্যক্রম চালাচ্ছে বিএসি স্টাডি সেন্টার

  © টিডিসি ফটো

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত আট হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে। ভাইরাসের ভয়াবহতা উপলব্ধি করে এটি যেন ছড়িয়ে পরেতে না পারে সেজন্য গত সোমবার (১৬ মার্চ) দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তবে মন্ত্রণালয়ের সেই নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পরীক্ষা-ভাইবাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে রাজধানীর বিএসি ইন্টারন্যাশনাল স্টাডি সেন্টার। যদিও প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে ১৮ মার্চ থেকে সব কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সরেজমিনে ধানমন্ডি-৫ এ অবস্থিত স্টাডি সেন্টারে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা ভাইবা শেষ করে ক্যাম্পাস থেকে বের হচ্ছেন। এসময় ক্যাম্পাসের ভেতরে খোঁজ নিতে গেলেও সিকিউরিটির দায়িত্বে থাকা লোকজন অপেক্ষারুমে বসে থাকতে বলেন। তারা ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এইচএনবি ডিপার্টমেন্টের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে কথা বললে তারা জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞার কথা শুনেছি। তবে কর্তৃপক্ষ তাদেরকে ক্যাম্পাসে আসতে নিষেধ করেননি। তাদের আজ ভাইবা ছিল। ভাইবা শেষ করে তারা বাড়িতে যাচ্ছেন। সংক্রমনের ঝুঁকি থাকলেও কিছু করার নেই। ভাইবা না থাকলে আসতাম না।

এ বিষয়ে বিএসি ইন্টারন্যাশনাল স্টাডি সেন্টারের এডমিন অফিসার ব্যারিস্টার ফিরোজ আহমেদ বলেন, আমাদের ক্লাসের কার্যক্রম বন্ধ আছে। তবে কয়েকটি বিভাগের ভাইবা এবং ডিফেন্স চলছে। নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর আমাদের আনুষাঙ্গিক কার্যক্রম আরো কয়েকদিন চালিয়ে যাওয়ার জন্য ধানমিন্ড থানা এবং র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-২-এর কাছে লিখিত দিয়েছি। র‌্যাব-২ থেকে দুইজন এসছে বিষয়টি দেখার জন্য।

এ বিষয়ে র‌্যাব-২-এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল আশিক বিল্লাহ জানান, স্টাডি সেন্টার থেকে লিখিত পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য আমাদের দুইজন সদস্যকে সেখানে পাঠিয়েছিলাম।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের কথা জানায় সরকারের রোগ তত্ত্ব ও গবেষণা ইন্সটিটিউট। দেশে এখন পর্যন্ত ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন মারা গেছেন। বিশ্বের ১৬৭টি দেশের দুই লাখেরও বেশি মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

 


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ