১৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:৪১

তালা খুলে আলোচনায় জাফরুল্লাহ, উত্তেজিত শিক্ষার্থীরা

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা এবং গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে টানা দেড়ঘণ্টা তালা মেরে অবরুদ্ধ রাখার পর সাধারণ শিক্ষার্থীরা আবারও তাকে নিয়ে বৈধ উপাচার্যের দাবিতে আলোচনা সভায় বসিয়েছেন। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। 

বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখার সময় বৈধ ভিসি দাবিতে তুপের মুখে পড়েন ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এসময় বক্তব্য বন্ধ করে তিনি চেয়ারে বসে গেলে আবার উত্তেজিত হয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা।

এর আগে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে গণবির একাডেমিক ভবনের চারতলার একটি কক্ষে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা সভায় অংশ নিতে এসে এ তোপের মুখে পড়েন তিনি।

আলোচনার শুরুতে সাধারণ ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক রনি আহমেদ বলেন, “ আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন বৈধ ভিসি নেই। আমরা বৈধ ভিসির নিয়োগ চাই। আমাদের শিক্ষার্থীদের জীবন নিয়ে চিনিমিনি খেলার অধিকার আপনাদের নেই। আপনারা দেশ নিয়ে অনেক কিছু ভাবেন কিন্তু আপনাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে কথা কেন ভাবতে পারেন না। আমাদের নিয়ে দয়া করে রাজনীতি করবেন না। দেশ ঠিক করার আগে দয়া করে নিজের ঘর ঠিক করেন।  আমাদের দাবি যদি মেনে না নেন,আপনি যদি কথা দিয়ে কথা না রাখেন আপনাকেও আমাদের সাথে ক্যাম্পাসে থাকতে হবে,না হলে আমরা আপনার বাসার সামনে গিয়ে বসে থাকবো।”

আলোচনার সময় ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে সম্বোধন করে ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম রলিফ বলেন, “আপনাকে দেশের মানুষ অনেক সম্মান করে, আপনি দয়া করে হিটলারের মত আচরণ করবেন না। হিটলার সারা পৃথিবীর মানুষ ঘৃণা করে ,এমন সময় যেন তৈরী না হয় যেন আপনাকেও আমাদের অসম্মান করতে হয়। তাই আপনি আজ এখানেই আমাদের সমস্যার সমাধান করে যাবেন।”

আলোচনায় সাধারণ ছাত্র পরিষদের অন্যতম নেতা শেখ খোদারনূর রনি বলেন, “গত চার বছর ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন বৈধ ভিসি নাই।আমরা আর কতদিন বসে থাকবো। এভাবে অবৈধ ভিসি দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় চালানে আমাদের ভবিষ্যৎতের কী হবে? 

আপনারা এভাবে হাজার হাজার শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ নষ্ট করে দিতে পারেন না। দীর্ঘদিন ধরে বিবিএ এবং ফিজিওথেরাপি বিভাগের শিক্ষার্থীদের অনুমোদন নেই এভাবে আর কতদিন তারা যাবাবরের মতো বাঁচবে। আজকের এই আলোচনা থেকেই আপনাদের লিখিত দিতে হবে যত দ্রুত সম্ভব আমাদের এই দুই দফা দাবির যথাযথ সমাধান করবেন। সমাধান না দিয়ে আপনি বের হতে পারবেন না।”

জানা যায়, মঙ্গলবার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা এবং গণ বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম সদস্য ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ক্যাম্পাসে আসলে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের নেতাদের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীরা তাদের ২ দফা দাবি তার কাছে তুলে ধরেন। এসময় তাদের দাবি না মেনে এক পর্যায়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রয়োজনে গণ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাবে বলে হুমকি দেন। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা, ‘জাফরুল্লাহ, জাফরুল্লাহ, মানি না, মানব না’, ‘জ্বালো রে জ্বালো, আগুন জ্বালো’ স্লোগান দিতে থাকে। অন্যদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল প্রশাসনিক কর্মকর্তা তখন নিশ্চুপ থাকেন।