মসজিদে এতেকাফে মৃত্যু, ঈদ হলো না প্রাথমিক শিক্ষকের

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে মসজিদে এতেকাফরত অবস্থায় শওকত আলী (৭৫) নামে এক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল ৮টার দিকে কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। শওকত আলী উপজেলার লোহাজুরী ইউনিয়নের উত্তর পূর্বচর পাড়াতলা গ্রামের মৃত সয়বুল্লাহ বেপারীর পুত্র। তিনি পূর্ব ফেকামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (অব.) শিক্ষক ছিলেন।

মৃত শওকত আলী মাস্টারের পুত্র বিজিবিতে কর্মরত মো. মোতাহার হোসেন জানান, আমার বাবা ২০ রমজানের বিকালে কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদে এতেকাফে বসেন। তিনি বেশ কিছুদিন যাবত লো প্রেসারে ভুগছিলেন। শনিবার ভোররাতে সেহেরি খাওয়ার পর একটি স্যালাইন খেয়েছিলেন। মনে হয় তাতেই প্রেশার অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যায়।

তিনি বলেন, গতরাতে বাবার সঙ্গে আমার ছোট ভাই মোশারফ মসজিদে ছিল। সকাল ৭টার দিকে সন্নিকটেই বাসায় চলে আসে। মোশারফ পুনরায় সকাল ৮টার দিকে মসজিদে গিয়ে দেখে বাবা উত্তর দিকে মাথা দিয়ে শুয়ে রয়েছেন। এ সময় বাবাকে ডাকাডাকি করে কোনো সাড়া না পাওয়ায় আমরা বাবাকে কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কটিয়াদী উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি মজিবুর রহমান জানান, শওকত আলী উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের নিয়মিত মুসল্লি। তিনি সদালাপী ও একজন ভাল মানুষ ছিলেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ