শিগগিরই প্রাথমিকে ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: প্রতিমন্ত্রী

সারাদেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৬২৬টি উল্লেখ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, শিক্ষার্থীদের তুলনায় শিক্ষককের স্বল্পতা রয়েছে। শিগগিরই ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে যাতে কিছুটা হলেও এ সমস্যার সমাধান হবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর অদূরে কেরানীগঞ্জ উপজেলায় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে এ সব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা দেশের সর্ববৃহৎ পরীক্ষা। প্রায় ৩০ লাখেরও বেশী পরীক্ষার্থী এ বছর সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে। তিনি বলেন, এর ফলে শিক্ষার্থীদের সাহস ও মনোবল বৃদ্ধি পাবে এবং প্রতিযোগী মনোভাব সৃষ্টি হবে।

তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মরাই ২০৪১সালের মধ্যে বর্তমান সরকার ঘোষিত উন্নত দেশ গড়ার উত্তম কারিগর। তাই এখন থেকেই মানসম্মত শিক্ষা প্রদান করে তাদেরকে আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এ লক্ষ্যে সরকার শিক্ষার ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক। তাই একেবারে শেকড় থেকেই আমরা মানসম্মত শিক্ষা উপহার দিতেই আজকের সমাপনী পরীক্ষার আয়োজন। তিনি আরো বলেন, আমাদের কোমলমতি এ সকল শিশু শিক্ষার্থীদের জোড় করে চাপিয়ে দিয়ে কোচিং করিয়ে জিপিএ-৫ পেতে হবে এর কোন প্রয়োজন নেই।

তিনি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রের সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভালো। তিনি আরো বলেন, মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তা সহ মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা সারাদেশের পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করছেন এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। সার্বক্ষণিকভাবে পরীক্ষার সার্বিক খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। কোথাও কোন প্রশ্নপত্র ফাঁস সহ অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। গুজবের বিরুদ্ধে কঠোর নজরদারি রাখার জন্য আইন-শৃঙ্খলার বাহিনীকে অনুরোধ করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী সারাদেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৬২৬ টি উল্লেখ করে বলেন, শিক্ষার্থীদের তুলনায় শিক্ষককের স্বল্পতা রয়েছে। অচিরেই ১৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে যাতে কিছুটা হলেও এ সমস্যার সমাধান হবে।

এসময় প্রতিমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত দেবনাথ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেরানীগঞ্জ সার্কেল কামরুল হাসান, ঢাকা বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা উপ-পরিচালক ইফতেখার হোসেন ভুইয়া, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলেয়া ফেরদৌসী শিখা সহ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাবৃন্দ। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন কেরাণীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, সোহেল,আগানগর ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মো.জাহাঙ্গীর শাহ খুশী, দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানা যুবলীগ সভাপতি হাজী মো.মাহমুদ আলম, আগানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মীর আসাদ হোসেন টিটু প্রমুখ।

পড়ুন: মাধ্যমিক শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ, পাস ৭১৬১ জন

পড়ুন: বেতন কমা নিয়ে যা বললেন অর্থ ও প্রাথমিক সচিব


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ