সেনাবাহিনীর প্রয়াস স্কুল পরিদর্শনে বান কি মুন পত্নী

সেনাবাহিনীর পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত কেন্দ্রীয় প্রয়াস বিশেষায়িত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুনের স্ত্রী ইয়ো সু তায়েক। বুধবার (১০ জুলাই) ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত প্রয়াসের আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (ইসিডিপি), স্কুল অব অটিজমসহ পাঁচটি বিশেষ বিদ্যালয়, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক এবং বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ বিদ্যালয়সহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিদর্শন করেন তিনি।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জুয়েনা আজিজ, পররাষ্ট্র্রমন্ত্রীর স্ত্রী বেগম সেলিনা মোমেন, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন। আমন্ত্রিত অতিথিরা প্রয়াস স্কুলে এসে পৌঁছলে কেন্দ্রীয় প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক ও অধ্যক্ষ কর্নেল মোঃ নুরুল হুদা তাঁদেরকে স্বাগত জানান।

প্রয়াস পরিদর্শনকালে ইয়ো সু তায়েক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে আন্তরিক সময় কাটান। এছাড়াও বিশেষ শিশুদের জন্য প্রয়াস প্রাঙ্গণে নির্মাণাধীন বাংলাদেশের একমাত্র সেন্সরি গার্ডেনটি পরিদর্শন করেন তিনি। সেন্সরি গার্ডেনটির নির্মাণ শেলী ও এর ব্যাপকতা দেখে প্রশংসা করেন বান কি মুন পত্নী। বিশেষ শিশুদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও উপভোগ করেন তিনি। পরে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ বিশেষ শিশুদের পরিবেশিত মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

প্রয়াসের নির্বাহী পরিচালক ও অধ্যক্ষ মো. নুরুল হুদা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক স্নেহদৃষ্টি ও সহযোগিতায় প্রয়াসের বিশেষ শিক্ষার্থীরা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অসামান্য কৃতিত্ব রাখছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় ও সেনাবাহিনীরর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অল্প সময়ের মধ্যে প্রয়াস একটি আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

তিনি আরও বলেন, সর্বস্তরে বিশেষ শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য দেশে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ। তিনিও প্রয়াসের সাথে সংশ্লিষ্ট রয়েছেন।

উল্লেখ্য, প্রয়াসের শিক্ষার্থীরা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অসামান্য কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখে চলছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় ও সেনাবাহিনীর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অতি অল্প সময়ের মধ্যেই প্রয়াস একটি আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

মঙ্গলবার ঢাকায় আসেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন দম্পতি। সন্ধ্যা ৬টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও তার স্ত্রী সেলিনা মোমেন তাদের স্বাগত জানান।

ঢাকায় আয়োজিত গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপ্টেশন (জিসিএ)- শীর্ষক সম্মেলনে যোগ দেবেন জাতিসংঘের অষ্টম মহাসচিব বান কি মুন। আজ বুধবার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাওয়ার কথা রয়েছে তার। এছাড়া বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুরে ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে বান কি মুন দম্পতির।

 


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ