‘ভারত শত্রুর মতো আচরণ করলে ঘরে বসে থাকবো না’

জোনায়েদ সাকি  © ফাইল ফটো

ভারত আমাদের প্রতিবেশী, বন্ধু রাষ্ট্র। আমরা প্রতিবেশীর তো পরিবর্তন করতে পারব না কিন্তু ভারত যদি প্রতিবেশীর মত আচরণ না করে শত্রুর মত আচরণ করে তাহলে আমরা ঘরে বসে থাকবো না বলে জানিয়েছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি।

সীমান্ত হত্যার প্রতিবাদে শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে আয়োজিত নাগরিক সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

জোনায়েদ সাকি বলেন, ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় আমাদের প্রতি যে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে তার জন্য আমরা ভারতের প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব। কিন্তু সহযোগিতার দোহাই দিয়ে আমাদের উপর দমন, নিপীড়ন, হত্যাযঙ্গ, তাবেদারি শাসন ব্যবস্থা চালিয়ে যাবে তা আমরা কখনো মেনে নিতে পারি না। আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি স্বাধীন এবং আত্মমর্যাদা নিয়ে বেছে থাকার জন্য। কারো গোলামী করার জন্য আমরা যুদ্ধ করি নি।

এ সময় তিনি অবিলম্বে ফেলানী সহ সীমান্তের সকল হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচারের ব্যবস্থা করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের সদয় দৃষ্টি জ্ঞাপন করেন।

বক্তারা রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ২২দিন ধরে অবস্থানরত নাসির আব্দুল্লাহ’র প্রতি সংহতি প্রকাশ করেন এবং সীমান্তে সকল হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার এবং জনগণের সরকার কায়েম করার জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান।

নাগরিক সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেন, ছাত্র গণমঞ্চের নেতা সাইদ বিলাস, রাষ্ট্রচিন্তার সম্পাদক ফরিদ আহমদ, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের নেতা পারভেজ আলম লেনিন কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের মেয়ে শিলা আহমেদ, বিপ্লবী যুব আন্দোলনের সভাপতি আতিক অনিক, বুয়েট শিক্ষার্থী আশরাফুল আলম সনি, সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্র ঐক্যের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ, ছাত্র ফেডারেশন, ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, সাধারণ শিক্ষার্থী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, ইসলামি শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন, বিভিন্ন প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ঢাবি, বুয়েট, মেডিকেলের শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন শ্রেণি, পেশার মানুষ উক্ত নাগরিক সভায় অংশ গ্রহণ করেন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ