ছাত্রদল কাউন্সিল: স্থগিতাদেশ এখন বিএনপি অফিসে

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের উপর আদালতের স্থগিতাদেশ বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আদেশের কপি পৌঁছে দেয়া হয়েছে। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কর্মকর্তা রেজাউল করিম এ আদেশের কপি গ্রহণ করেছেন বলে জানা গেছে।

এর আগে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের উপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন আদালত। ছাত্রদলের কাউন্সিলে অস্থায়ীভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন জজকোর্টের ৬ নম্বর আদালত। সহকারী জজ নুসরাত জাহান বিথি এ আদেশ দেন।

আজ বৃহস্পতিবার ছাত্রদলের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক আমানউল্লাহ আমানের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত এই আদেশ দিয়েছেন। ২৭ বছর পর ছাত্রদলের এ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

এছাড়া ছাত্রদলের কাউন্সিলে কেন স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে না তা জানতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১০ নেতাকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

স্থগিতাদেশ

 

বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান খায়রুল কবির খোকন দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেনি। এই রকম একটি তথ্য তিনি শুনেছেন বলে জানান। তিনি জানান, আদালতের স্থগিতাদেশ থাকলে কাউন্সিল স্থগিত হবে। আইনজীবিদের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ষষ্ঠ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছিল দেশের অন্যতম বৃহৎ ছাত্র সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের। শীর্ষ দুই পদে নেতা নির্বাচিত হবেন গণতান্ত্রিক পন্থায়। ইতিমধ্যে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ২৮ জন প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এর মধ্যে সভাপতি হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন ৯ জন এবং সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ১৯ জন। 


মন্তব্য