আসামে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা: বাদ পড়াদের রাখা হবে বন্দি শিবিরে

নির্মিত হচ্ছে বন্দিশিবির  © সংগৃহীত

আসামে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) থেকে বাদ পড়া বাঙালিদের রাখা হবে বন্দি শিবিরে। সেজন্য বন সাফ করে রাজ্যের গোয়ালপাড়ায় জায়গাও প্রস্তুত করেছে ভারত সরকার। বিশাল সেই জায়গায় নির্মাণ করা হবে ১০টি বন্দি শিবির। প্রতিটি বন্দি শিবিরে একটি স্কুল, একটি হাসপাতাল, একটি বিনোদনকেন্দ্র ও নিরাপত্তাকর্মীদের জন্য আবাসস্থল থাকবে। ১০ ফুট উচু বেষ্টনী দিয়ে ঘেরা থাকবে বন্দি শিবিরগুলো। নজরদারির জন্য থাকবে পর্যবেক্ষণ টাওয়ার। এ খবর জানিয়েছে রয়টার্স।

গত ৩১ আগস্ট আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশিত হয়। সেই তালিকায় স্থান পায় ৩ কোটি ১১ লাখ মানুষ। বাদ পড়েছে ১৯ লাখ ৬ হাজার মানুষ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আসামের এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে আসামের কারাগারে থাকা ৯০০ বন্দীকে এই বন্দিশিবিরে আনা হবে।

রয়টার্স তাদের প্রতিবেদনে আরো জানায়, বাদ পড়াদের অধিকাংশই শ্রমিক শ্রেণীর। নিজেদের নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে না পারলে এই শ্রমিকদের অনেকেরই ঠাই হবে বন্দিশিবিরে।

বন্দিশিবিরে কাজ করছেন নির্মাণ শ্রমিক শেফালি হাজং। তিনি জানান, প্রকাশিত এনআরসিতে তার নাম নেই। প্রায় ১৯ লাখ মানুষের মতো তাকেও এখন নিজের নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে হবে। দিতে না পারলে নিজের হাতে নির্মাণ করা এই বন্দিশিবিরই হতে পারে তার ভবিষ্যৎ আশ্রয়স্থল। সবকিছু জেনেও পেট চালানোর তাগিদে বন্দিশিবির নির্মাণের কাজ করছেন শেফালি। দিনে ৪ ডলার বা ২৮৬ রুপি পারিশ্রমিক পান শেফালির মতো শ্রমিকেরা। অভাবী ওই এলাকায় এই মজুরিকে বেশ আকর্ষণীয়ই মনে করেন শ্রমিকেরা। একই পরিণতি ভোগ করতে হতে পারে অন্য নির্মাণ শ্রমিকদেরও।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ