বিয়ের অনুষ্ঠান বাতিলের বিজ্ঞপ্তিতে ভরপুর কাশ্মীরি পত্রিকা

ভারতীয় সংবিধানের দেওয়া বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর স্থবির হয়ে আসে জম্মু ও কাশ্মীরের জনজীবন। সব ধরনের যোগাযোগব্যবস্থা অচল করে রাখা হয়েছে সেখানে। এমন অবরুদ্ধ অবস্থায় আগে নির্ধারিত অনুষ্ঠানগুলো স্থগিত করা হচ্ছে। তার প্রমাণ মেলে সংবাদপত্রে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনে।

সম্প্রতি বিবিসিতে স্থানীয় সংবাদপত্রের একটি পৃষ্ঠার কিছু অংশের ছবি প্রকাশ হয়। সেখানে দেখা যায়, একাধিক বিয়ের অনুষ্ঠান স্থগিত করে আমন্ত্রিতদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে।উপমহাদেশে মুসলমান অধ্যুষিত অঞ্চলে দুই ঈদের সময় বিয়ের ধুম পড়ে। তার নজির দেখা গেল ওই ছবিতে।

সপ্তাহ দেড়েক আগে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের সূত্রে অঞ্চলটিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। এমনকি ঈদুল আজহার নামাজেও কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। অনেক মসজিদে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়নি।

সম্প্রতি কাশ্মীর ঘুরে আসা ভারতের পাঁচ রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মী ‘কাশ্মীর কেজড’ অর্থাৎ খাঁচাবন্দী কাশ্মীর নামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন।পাঁচ দিন ধরে কাশ্মীরের নানা প্রান্ত ঘুরে ক্ষোভের আঁচ পেয়েছেন তারা। জানান, শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করারও পরিস্থিতি নেই সেখানে। সেই ক্ষোভ যাতে সামনে না আসে, তার জন্য একদিকে রয়েছে কঠোর নিষেধাজ্ঞা, অন্যদিকে চলছে সংবাদমাধ্যমের ওপরে অঘোষিত নিয়ন্ত্রণ।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রায় ৬০০ রাজনৈতিক নেতা-কর্মীকে আটক করে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া শহরে বা গ্রামে যেখানেই তারা গেছেন, সেখানেই দেখেছেন তরুণ বা যুবক, এমনকি স্কুলছাত্রদেরও আটক করে রাখা হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ