ফের ক্ষমতায় বসছে মোদির বিজেপি: বুথ ফেরত জরিপ

ভারতের লোকসভা নির্বাচন শেষ হয়েছে। চারটি বুথ ফেরত জরিপে এগিয়ে আছে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ)। রবিবার সর্বশেষ ধাপের মধ্য দিয়ে সাত ধাপের লোকসভা নির্বাচন সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। আগামী বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করবে নির্বাচনী কমিশন।

তবে এর আগে ‘দ্রুত ফলাফল’ জানানোর জরিপ প্রকাশ করে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো।একাধিকবার এসব জরিপ সত্য প্রমাণিত হলেও ২০১৪ ও ২০০৯ সালের লোকসভায় বুথ ফেরত জরিপ ভুল প্রমাণিত হয়েছিল।

হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, টাইমস নাউ টিভি চ্যানেলের বুথ ফেরত জরিপে দেখা গেছে, ৩০৬টি আসন নিয়ে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে এনডিএ জোট। কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স (ইউপিএ) পাচ্ছে ১৩২ আসন। মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি নেতৃত্বাধীন এমজিবি জোট পাচ্ছে ২০টি আসন। অন্যান্যরা পাচ্ছে ৮৪টি আসন।

ভারতের জাতীয় এ নির্বাচনে সর্বমোট ৫৪৩টি আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে প্রয়োজন ২৭২টি আসন। সেদিক দিয়ে স্পষ্টই দেখা যাচ্ছে, পরবর্তী মেয়াদেও ক্ষমতায় বসতে যাচ্ছে বিজেপি। একইভাবে রিপাবলিক টিভির জরিপে এনডিএ জোট এগিয়ে আছে ২৮৭ আসনে। ইউপিএ পাচ্ছে ১২৮ আসন। অন্যান্য ১২৭।

রিপাবলিক ভারতের সঙ্গে রিপাবলিক টিভির আরেকটি জরিপে এনডিএ জোট এগিয়ে আছে ৩০৫ আসনে। কংগ্রেস পাচ্ছে ১২৪ আসন এবং অন্যান্যরা ১১৩ আসন।

নিউজ নেশনের জরিপে ২৮২ থেকে ২৯০ আসনে এগিয়ে আছে এনডিএ জোট। ইউপিএ জোট পাচ্ছে ১১৮ থেকে ১২৬ আসন। অন্যান্য ১৩০-১৩৮ আসন। এখন পর্যন্ত সবগুলো জরিপেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট।

ভারতের এবারের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে প্রায় ৯০ কোটি ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সাত দফার এ নির্বাচনে প্রায় ১০ লাখ ভোটকেন্দ্র তৈরি করা হয়। বিশ্বের সর্ববৃহৎ এই ম্যারাথন ভোটযজ্ঞ শুরু হয়েছিল গত ১১ এপ্রিল। প্রথম দফার ভোটে ভোটদানের হার ছিল ৬৯.৪৩ শতাংশ। ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় এবং ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় ৬৬ শতাংশ ভোট পড়ে। ২৯ এপ্রিল চতুর্থ দফায় ভোটদানের হার ছিল ৬৪ শতাংশ। ৫৭.৩৩ শতাংশ ভোট পড়ে পঞ্চম দফায়। ৬৩.৩ শতাংশ ভোট পড়েছে ষষ্ঠ দফার ভোটে।


মন্তব্য