বাংলাদেশ এখনও খুব কাছের একটা জায়গা: ওয়াসিম আকরাম

  © সংগৃহীত

ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলতে ১৯৯৫ সালে ওয়াসিম আকরাম এসেছিলেন বাংলাদেশে। ওই সময় প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে খেলাতে আবাহনী তাকে এনে হইচই ফেলে দিয়েছিল। স্মৃতির ঝাঁপি খুলে ঢাকার সেই সোনালী দিনগুলোর কথা আবারও স্মরণ করলে সর্বকালের অন্যতম সেরা এ পেসার।

মঙ্গলবার (১৯ মে) তামিম ইকবালের ফেসবুক লাইভ আড্ডায় এসে কাল ওয়াসিম আকরাম ফিরে যান সেসব দিনে। মিনহাজুল আবেদীন, আকরাম খান ও খালেদ মাসুদও তামিমের এই আড্ডায় ছিলেন।

ওয়াসিম আকরাম বলেন, কামাল (আ হ ম মোস্তফা কামাল, আবাহনীর সাবেক পরিচালক) ভাই আমার পারিবারিক বন্ধু। তিনিই আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন আবাহনীর হয়ে খেলার জন্য। তিনি আমাকে বলেছিলেন, তোমাকে মোহামেডানের বিপক্ষে খেলতে হবে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে কী পরিমাণ উন্মাদনা তখন এসে দেখেছি! তখনই বোঝা গিয়েছিল ক্রিকেট কতটা জনপ্রিয় হতে যাচ্ছে বাংলাদেশে। পাকিস্তানেও আমরা ক্লাব পর্যায়ের ক্রিকেট, ফুটবল বা হকিতে এত আবেগ দেখিনি।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ব্রাদার্সের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে খেলতে নামেন ওয়াসিম আকরাম। এরপর খেলেন চির প্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানের বিপক্ষে। আবাহনী অবশ্য মোহামেডানের কাছে হেরেছিল সেদিন। স্টেডিয়ামে ছিল প্রচুর দর্শক।

ঢাকার সেই দিনগুলোর কথা মনে করে ওয়াসিম আকরাম বলেন, বাংলাদেশ এখনও আমার খুব কাছের একটা জায়গা। মানুষগুলো প্রচন্ড আন্তরিক, অতিথিপরায়ণ। ওখানকার খাবার-দাবার অসাধারণ। বিশেষ করে মাছের ঝোলের কথা মনে পড়ে এখনও। সত্যি আমি বাংলাদেশকে অনেক মিস করি।

তামিমের আড্ডায় ঘুরে ফিরে উঠে আসে ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়ে দেওয়া বাংলাদেশ দলের গল্প। ওই ম্যাচে হারের পর আকরাম-আমিনুলদের ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম। তিনি বলেন, আমাদের চেয়ে সেদিন বাংলাদেশই ভালো ক্রিকেট খেলেছিল। টুর্নামেন্টে বেশিরভাগ ম্যাচে আমরা প্রথমে ব্যাট করেছি। ওই ম্যাচেও আমরা রান তাড়ার অনুশীলন করতে চেয়েছিলাম। ওরা দারুণ বল করেছিল। বিশেষ করে মিডিয়াম পেসাররা সুইং করাচ্ছিল। সব মিলিয়ে ওরাই সেদিন ভালো খেলেছিল। ওদের প্রশংসা করতেই হতো। ম্যাচ শেষে ওদের সবাইকে অভিনন্দন জানিয়েছিলাম আমি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ