মূল্যবৃদ্ধির গুজবে মানুষগুলো তো মুখ পোড়াবেই!

মানুষ যখন দেখে, দুই মাস পেরিয়ে গেলেও পেঁয়াজের দাম কমাতে পারে না প্রবল ক্ষমতাধর মহাকাশ জয়ী একটা সরকার! যেখানে দেড় মাস আগে খোদ প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত ভারতে গিয়ে হিন্দি ভাষায় পেঁয়াজের জন্য এতো আঁকুতি জানানোর পরও বন্ধুপ্রতীম দেশ থেকে পেঁয়াজের একটি কোয়াও পাওয়া যায় না!

যখন রাষ্ট্রের সর্বময় ক্ষমতাশালী ব্যক্তিটি হতাশ হয়ে বলেন, ‘গণভবনে পেঁয়াজ দিয়ে রান্না হয় না’! তিনিই যখন হাল ছেড়ে দিয়ে বলেন, ‘আমি পেঁয়াজ খাওয়া ছেড়ে দিয়েছি’! তখন নিত্যদিন জীবন যুদ্ধে খেটে খাওয়া সাধারন মানুষের মনে চরম ভয় ও আতংকের জন্ম নেয়াটাই তো স্বাভাবিক। সাধারন মানুষ নিজের পরিবারের খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার ভয়ে তখন আর কাউকেই বিশ্বাস করতে চায় না!

দেশের এই সাধারন মানুষগুলোর কাছে ২০০-২৭০ টাকায় ১ কেজি পেঁয়াজ কিনতে পারাটা যখন দুঃস্বপ্নের মত! ঠিক তখনই যদি তাদেরকে একথা শুনতে হয়, ‘৭শ টাকায় মাংস খেতে পারেন, ২৭০ টাকায় পেঁয়াজ খেতে সমস্যা কোথায়?’ তখন মানুষের দুঃখ-কষ্টের সাথে তামাশাকারীদের উপর সাধারন মানুষের আস্থা বলতে বিন্দুমাত্র কিছুই আর অবশিষ্ট থাকে না!

গণমানুষের বিশ্বাস ও আস্থাহীনতার সাথে মানুষের ঘৃণা ও ক্ষোভ তখন দ্রুতবেগে বেড়ে যায়। যখন রাষ্ট্রের কর্তাবাবুরা বলে বেড়ান— ‘পেঁয়াজ ছাড়াই ২২ পদের রান্না জানি’! ‘বাজারে পেঁয়াজের দাম সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে’! ‘আর কোন চিন্তা নাই, পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে’!

কিন্তু দিন পেরিয়ে যায়। সেই বিমান আর আসে না! সেই পেঁয়াজেরও আর দেখা মেলে না! যতই তারা বলে বেড়ায় যে, ‘দুই এক দিনের মধ্যেই পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’ মানুষ এসব কথা তখন আর একেবারেই বিশ্বাস করতে চায় না। এই ‘দুই এক দিন’ আর আসে না। মাস পেরিয়ে যায়! আট সপ্তাহে দুই মাস পার হয়! এদিকে দিন বাড়ার সাথে সাথে পেঁয়াজের মূল্যই শুধু বাড়ে না, মানুষের হতাশাও বাড়তে থাকে সমানুপাতে!

আর এই হতাশাগ্রস্থ মানুষগুলো যখন দেখে, ‘১ কেজি পেঁয়াজের জন্য শত শত মানুষ কিভাবে ট্রাকের সামনে দাঁড়িয়ে লড়ে যাচ্ছে!’ যখন খবরে পড়ে, ‘পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে ধাক্কাধা‌ক্কি, পু‌লিশের ‘মিস ফায়ারে’ গু‌লি‌বিদ্ধ ২।’ তখন মানুষ প্রচন্ড ভয় পায়! এই ‘মুখপোঁড়া’ মানুষগুলো তখন লবণের মূল্যবৃদ্ধির গুজবে ‘মুখ পোঁড়াতেও’ কোন আপত্তি করে না! কারন, তখন আর তারা কারো কথায় কোন বিশ্বাস রাখতে পারে না! গুজব তখন ডালপাতা মেলে প্রসারিত হতে থাকে দ্রুতবেগে। যেমনটা সাধারন মানুষের আস্থাহীনতা ও গণমানুষের ঘৃণার বিস্তৃতি ঘটে ছাপান্ন হাজারের বর্গমাইলে!

লেখক: আইনজ্ঞ ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ