৩ মাস বেতন-ভাতা বঞ্চিত ৬শতাধিক শিক্ষক

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলাতে ৩মাস ধরে বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না সাক্ষরতা প্রকল্পের ৬শতাধিক শিক্ষক। গত ৩মাস ধরে ওই শিক্ষকরা নিয়মিত শিক্ষার্থীদের পাঠদান করালেও তাঁরা আজও বেতন পাননি। ফলে ভেস্তে যেতে বসেছে সরকারের মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

জানা গেছে, ওই প্রকল্পে ৬৪ জেলায় কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সেবা পরিষদ ঝিনাইগাতী উপজেলায় ৩শ’টি কেন্দ্র চালু করে। ওই ৩শ’কেন্দ্র পরিচালনার জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে পুরুষ ও একজন করে নারী শিক্ষক এবং ১৫জন সুপারভাইজার নিয়োগ দেওয়া হয়।

প্রকল্পের সুপারভাইজার কোরবান আলী জানান, স্থানীয়ভাবে ১৫০টি ঘর ভাড়া নিয়ে ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৫০টি কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়। গত জানুয়ারী মাস থেকে কেন্দ্রগুলো চালু হলেও মালিকদের ভাড়া ও শিক্ষকদের বেতন দেওয়া হয়নি। গত ৩ মাসেও ১৫০টি ভাড়া কেন্দ্রের মালিকদের ভাড়া ও ৬১৫জন শিক্ষকের বেতন দেয়া হয়নি। এছাড়া কেন্দ্র চালুর পূর্বে উপজেলার বিভিন্ন ওয়ার্ডে নিরক্ষর নারী-পুরুষ বিষয়ে জরিপকারী ৬৩জন এখনো পারিশ্রমিকপায়নি। ২০দিন ধরে তারা এ জরিপ কাজ করেন।

এ বিষয়ে সেবা পরিষদের পরিচালক জয়নাল আবেদীন বলেন, শিক্ষকদের বেতনের বিষয়ে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। জরিপকারীদের পারিশ্রমিকের বিষয়ে তিনি বলেন, সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সময় জরিপ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। তাই বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার টাকা উত্তোলন ফর্মে সাক্ষর না করায় পারিশ্রমিক দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

ইউএনও রুবেল মাহমুদ বলেন, কাগজপত্রে জটিলতাসহ দায়িত্বে সীমাবদ্ধতার কারণে ওই ফর্মে সাক্ষর করা সম্ভব হচ্ছে না। একাউন্টের মাধ্যমে শিক্ষকদের মাসিক বেতন দেয়ার প্রস্তুতি চলছে। ‍


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ