৬ দেশ থেকে আসছে ৪০ হাজার টন পেঁয়াজ

৬ দেশ থেকে আসছে ৪০ হাজার টন পেঁয়াজ
  © ফাইল ফটো

ভারত পেয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর বাংলাদেশ বিকল্প দেশ থেকে এরই মধ্যে পেয়াজ আনার উদ্যোগ নিয়েছে আমদানি কারকরা। গত ১৩ দিনে ছয়টি দেশ থেকে ৪০ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দিয়েছে ‘প্ল্যান্ট কোয়ারেন্টাইন’ তথা ‘উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্র’। আইপি ইস্যু হয়েছে ১০১টি।

চীন, মিয়ানমার, পাকিস্তান, মিশর, তুরস্ক, নেদারল্যান্ড এই ছয়টি দেশ থেকে পেঁয়াজ আমাদানির জন্য এলসি খোলেন আমদানিকারকরা। পাইপলাইনে থাকা এসব চালান আগামী সপ্তাহ থেকে বাজারে ঢুকতে শুরু করবে বলে দাবি আমদানিকারকদের।

জানা গেছে, গত বছর সেপ্টেম্বরে এসে ভারত পেয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এবারও ঠিক একই সময়ে রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দেয়। এতে করে গত একদিনে দেশের পেঁয়াজের বাজারগুলো অস্থির হয়ে পরে। প্রায় একদিনেই দ্বিগুন হয়ে যায় পেয়াজের দাম। এছাড়া গত সোমবার খুচরা বাজারে দেশি পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও একদিন পর বুধবার তা কিনতে হচ্ছে ১৩০ টাকায়। এ ছাড়া ৬০ টাকার আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি হয় ১০০ টাকা কেজি দরে।

তবে বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশে আমদানি চাহিদার ৯০ শতাংশের বেশি পেঁয়াজ আসে ভারত থেকে। ফলে প্রতিবেশী দেশটি রপ্তানি বন্ধ করায় বাজারে কিছুটা প্রভাব পড়বেই। কিন্তু ব্যবসায়ীরা যেভাবে অস্বাভাবিকভাবে দাম বাড়াচ্ছেন সেটি কোনোভাবেই যৌক্তিক নয়। গত বছরের মতো পরিস্থিতি যেন এবার তৈরি না হয়, তার জন্য যা যা করা দরকার সরকারকে এখনই করা উচিত।

‘প্ল্যান্ট কোয়ারেন্টাইন’ এর চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর শাখার তথ্যমতে, ভারত রপ্তানি বন্ধ করে আগেই অর্থাৎ গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে বিকল্প দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি নিতে শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। গেল ১৩ দিনে প্রায় ৩৯ হাজার ৯১৩ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছে ২৫টি প্রতিষ্ঠান। মঙ্গলবার একদিনেই প্রায় ৩ হাজার ৮১২ হাজার টনের বেশি পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দিয়েছে সংস্থাটি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, দেশে বছরে পেঁয়াজের চাহিদা ২৫ লাখ মেট্রিক টন। এ বছর দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজের পরিমাণ ২৫ লাখ ৫৭ হাজার মেট্রিক টন। যেহেতু পেঁয়াজ পচনশীল পণ্য, তাই প্রতিবছরই উৎপাদিত পেঁয়াজের ৩০ শতাংশ পচে গিয়ে ভালো থাকে ১৯ লাখ ১১ হাজার মেট্রিক টন। এবারও তাই হয়েছে। এখানেই মূলত ঘাটতি তৈরি হয়। আর এই ঘাটতির পরিমাণ ৫ থেকে ৭ লাখ টন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ