৫ জেলায় তাণ্ডব চালিয়ে জামালপুর হয়ে বিদায় নেবে আম্ফান

  © সংগৃহীত

বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ হয়ে সুন্দরবন ঘেঁষে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ স্থলভাগে উঠে এসেছে। আবহাওয়াবিদদের মতে, এটি উপকূল পেরিয়ে বিশাল এলাকাজুড়ে স্থলভাগের দিকে এগিয়ে যেতে থাকবে। তবে একই সঙ্গে বৃষ্টি ঝরিয়ে এর শক্তি ক্ষয় হয়ে যাবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, আম্ফানের একটি অংশ বাংলাদেশের সাতক্ষীরা ও খুলনা অঞ্চল দিয়ে ঢুকে যশোর ও নড়াইল জেলার দিকে আজ রাতেই চলে যাবে। এই পর্যন্ত এর বাতাসের গতিবেগ হবে ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটারের মতো। সেখান থেকে মাগুরা, গোপালগঞ্জ, রাজবাড়ী, সিরাজগঞ্জ থেকে জামালপুরের দিকে এগিয়ে যাবে আজ রাত ১২টা থেকে ১টার মধ্যে। 

আজ বুধবার বিকেল পাঁচটায় সুন্দরবন–সংলগ্ন এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে ঢোকে আম্পান। আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দীন আহমেদ জানিয়েছেন, রাত আটটার মধ্যে আম্পান বাংলাদেশের সাতক্ষীরা, খুলনা অঞ্চল অতিক্রম করবে। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ক্রমান্বয়ে কমতে থাকবে।

তবে ভূখণ্ডে আম্পানের স্থল নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার মধ্য দিয়ে আম্পানের নাম মুছে যাবে। পরে ময়মনসিংহ হয়ে ভারতের উত্তর–পূর্বাঞ্চলে গিয়ে হারিয়ে যাবে স্থল নিম্নচাপটি। এর প্রভাবে কাল বৃহস্পতিবারও বৃষ্টি হবে। পরদিন শুক্রবার ২২ মে দেখা যাবে ঝলমলে রোদ।

এদিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নারকীয় তাণ্ডব চালিয়েছে ‘আম্ফান’। এ পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। কলকাতা একেবারে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে মন্তব্য করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেছেন, গোটা ধ্বংসের চিত্র বুঝতে ১০ থেকে ১২ দিন লেগে যাবে। এক দিনে এই ক্ষয়ক্ষতি পরিমাপ করা সম্ভব নয়।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে বাংলাদেশেও ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এরমধ্যে দু’জন করে পটুয়াখালীর ও ভোলার এবং একজন সন্দীপের। আম্ফানের প্রভাবে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ