আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

  © সংগৃহীত

বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত শেষ হয়েছে। রবিবার বেলা পৌনে বারোটায় মোনাজাত শুরু করেন ভারতের মুরব্বি মাওলানা জামশেদ। এর আগে সকালে ইজতেমার ময়দানে মোনাজাত শুরু হতেই নেমে আসে পিনপতন নীরবতা। আরবি ও উর্দুতে করা মোনাজাতে মাওলানা জামশেদ প্রথমে সৃষ্টিকর্তা আল্লাহতায়ালার প্রশংসা, রাসূলে কারিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ওপর দরুদ পাঠ করেন।

এরপর মোনাজাতে তিনি ইজতেমার কামিয়াবি, অংশগ্রহণকারীসহ সব মুসলমানদের গোনাহ মাফ, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ, বিশ্ব শান্তি, বিশ্ববাসীর সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করেন।

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয় এবারের ইজতেমা। মোনাজাতে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার আনোয়ার হোসেনসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ টঙ্গীর স্থানীয় ও আশপাশের মুসল্লিরা অংশ নেন। মোনাজাতে বিপুল পরিমাণ নারীরা অংশ নেন। নারীদের বেশিরভাগ বিভিন্ন ভবনের ছাদে বসে মোনাজাতে অংশ নেন।

আখেরি মোনাজাতকে ঘিরে ইজতেমার ময়দান ও এর আশপাশের এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও আব্দুল্লাহপুর আশুলিয়া বাইপাস সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে লোক সমাগম কম থাকায় এসব রাস্তায় হোন্ডা, রিক্সা, ইজিবাইক ও সিএনজি চলাচল করায় মুসল্লিদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

আখেরি মোনাজাতের জন্য টঙ্গীতে অবস্থিত সকল সরকারি, আধা সরকারি ও বেসরকারি অফিস-আদালত ও কলকারখানা আধাবেলা বন্ধ ঘোষণা করা হয়। রবিবার বাদ ফজর ভারতের মৌলভি ইকবাল হাফিজ ময়দানে আমা বয়ান করেন। তার বয়ান বাংলায় অনুবাদ করেন ইঞ্জিনিয়ার ওয়াসিফুল ইসলাম।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ