পূজার দিনে নির্বাচন, হাইকোর্টের আদেশ আজ

রাজধানী ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন আগামী ৩০ জানুয়ারি হবে কি না সে বিষয়ে আজ আদেশ দেবেন হাইকোর্ট। বিভিন্ন মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আজ মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি)  আদালতের এ আদেশে নজর রয়েছে সব মহলের।

আদালতকে ইসির আইনজীবী জানিয়েছেন, ৩০ জানুয়ারি নির্বাচন না হলে আগামী তিন মাসেও করা সম্ভব হবে না। আর রিটকারি দাবি করেছেন, সরস্বতী পূজার সময় নির্বাচন হলে ধর্মীয় অনুভূতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। নির্বাচনের তারিখ পেছাতে কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা।

৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর থেকেই তা পেছানোর দাবি জানিয়ে আসছে পরিষদ। ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি সরস্বতী পূজা থাকায় এমন দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

নির্বাচনের তারিখ পেছানোর দাবিতে সোমবার রিটের প্রাথমিক শুনানি হয়। শুনানিতে আদালত প্রশ্ন তোলেন, পঞ্জিকা দেখে কেন ভোটের দিন নির্ধারণ করা হয়নি। ইসির আইনজীবী বলেন, সার্বিক দিক বিবেচনা করে ভোটের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। এখন পিছিয়ে গেলে তিন মাসের মধ্যে আর নির্বাচন করা সম্ভব নয়।

গত ৫ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ এ রিট করেন। তিনি উল্লেখে করেন, ২৯ ও ৩০ জানুয়ারি সরস্বতী পূজা রয়েছে। সব বিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা হয়। নির্বাচন উপলক্ষে শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হবে বিধায় এটি সাংঘর্ষিক।

তিনি বলেন, পঞ্চমী শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিমা বিসর্জন দেয়া যায় না। তাই নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করে ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে নির্ধারণের জন্য হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ