সেই মানুষটাই আজ কাঠগড়ায়!

‘নিজের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানো বলে একটা কথা প্রচলিত আছে। ইলিয়াস কাঞ্চনকে আমার সব সময়ই মনে হয়েছে নিজের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানোর অসাধারণ এবং খুবই চমৎকার উদাহরণ। সড়ক দুর্ঘটনায় আচমকা স্ত্রীকে হারিয়ে এই মানুষটা সেই যে নিরাপদ সড়কের জন্য পথে নেমেছিল; আজ অবদি পথেই আছেন। কতো মানুষ এসছে-গিয়েছে। কিন্তু এই মানুষটা বাংলাদেশের কোটি কোটি মানুষের নিরাপত্তার জন্য আন্দোলন করে যাচ্ছেন’— এই বাক্যগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেছেন —শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম। তিনি বর্তমানে দেশের বাইরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা পেশায় ‍নিযুক্ত রয়েছেন।

নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারের দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো আজ রোববারও বাস-ট্রাক চলাচল বন্ধ রেখে প্রতিবাদ জানিয়েছেন পরিবহন শ্রমিকরা। এসময় টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বাসস্ট্যান্ড চত্বরে নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের উদ্যোক্তা চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের কুশপুত্তলিকায় জুতার মালা পরিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখে শ্রমিকরা।

এছাড়া গাজীপুরে একটি ব্যানারও টাঙানো হয়েছে। সেখানে লেখা— ‘পণ্য পরিবহনের দালাল, ড্রাইভার-মালিকদের ঘাতক ইলিয়াস কাঞ্চনের দুই গালে জুতা মারো তালে তালে’।

আন্দোলনের সময় এদিকে শ্রমিকরা বলেন, বিশাল অঙ্কের জরিমানা, জেলজুলুম আর অপমানজনক ‘ঘাতক’ শব্দ মাথায় নিয়ে গাড়ি চালাব না। তারা জানান, চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন সরকারের দালাল। সরকারের নিকট থেকে মোটা অঙ্কের টাকা খেয়ে দালালি করছে।

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের উদ্যোক্তা চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের কুশপুত্তলিকা

 

আমিনুল ইসলাম আরও লেখেন, নিরাপদ সড়কের দাবি আন্দোলন করে ইলিয়াস কাঞ্চনের এক পয়সাও লাভ নেই। উল্টো নিজের পয়সা খরচ করে এই আন্দোলন করে গিয়েছেন। আর আজ কিনা দেখতে হচ্ছে এমন কিছু। আপনারা মানুষ হত্যা করার লাইসেন্স চাইছেন। এই জন্য আজ আবার ধর্মঘটও দেখেছেন। মানুষ হত্যার লাইসেন্স পাওয়ার জন্য ধর্মঘট দেখেছেন ভালো কথা। কিন্তু ইলিয়াস কাঞ্চনের গালে জুতা মারতে হবে কেন? যেই মানুষটা নিজের টাকা খরচ করে এই দেশের কোটি মানুষের নিরপত্তার জন্য আন্দোলন করছে; আপনারা তার গালে জুতা মারতে চান! আর যারা কোটি কোটি টাকা লুটপাট করে এমনকি মন্ত্রী-এমপি হয়ে যাচ্ছে; তারা হচ্ছে আপনাদের নেতা! তাও হতো, এরপর এদের ব্যবহার করে মানুষ হত্যার লাইসেন্সও আবার চান! বাংলাদেশই মনে হয় পৃথিবী নামক গ্রহের এক মাত্র দেশ; যেখানে প্রকাশ্যে মানুষ হত্যার লাইসেন্স চাওয়া হয়। সভ্যতা এই জনপদে এখনও হাজার মাইল দূরে।

নতুন সংস্কার আইনের কয়েকটি ধারা পরিবর্তন ও সংশোধন না করলে শ্রমিকরা গাড়ি চালাবে না বলে জানায়। এদিকে গাড়ি বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ যাত্রীরা। যাত্রীরা জানান, গাড়ি বন্ধ থাকায় তারা কর্মস্থলে যেতে পারছেন না।

পড়ুন: কলকাতার আকাশে যেন টাকাবৃষ্টি, হুমড়ি খেয়ে পড়লো জনসাধারণ! (ভিডিও)


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ