‘ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু’ সঙ্গীত অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন

‘ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু’  মিউজিক ভিডিও অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান অতিথিবৃন্দ
‘ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু’ মিউজিক ভিডিও অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান অতিথিবৃন্দ  © সংগৃহীত

স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী মুক্তিযোদ্ধা শাহীন সামাদ ও কণ্ঠশিল্পী জয়নুল আবেদীনের গাওয়া বঙ্গবন্ধু ও ইতিহাস কেন্দ্রিক রচিত দশটি মৌলিক গান নিয়ে প্রকাশিত হলো ‘ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক মিউজিক ভিডিও অ্যালবাম। শুক্রবার বিকালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় অ্যালবামটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান।

এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব রফিকুল ইসলাম খান এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. রতন সিদ্দিকী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভের (ইউডা) চারুকলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাহজাহান আহমেদ বিকাশ।

অনুষ্ঠানে যুগ্ম সচিব রফিকুল ইসলাম খান বলেন, শিল্পী এ গানগুলোর মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা, বঙ্গবন্ধু, শেখ রাসেল এবং শেখ ফজিলাতুন্নেসাসহ সবার কথা ফুটিয়ে তুলেছেন। সহজ সরল চিত্রে শিল্পীর এ কাজ অনন্য।

অধ্যাপক ড. রতন সিদ্দিকী বলেন, শিল্পী জয়নুল আবেদীনকে শুধু শিল্পী, সুরকার বা গীতিকার হিসেবে দেখলে বড় ভুল হবে। তিনি বাঙালির জাতিসত্তার উন্মেষকালকে তার কৈশোর ও যৌবনের চোখে দেখেছেন। এ সবগুলো থেকে তিনি যে শেকড় বিচ্ছিন্ন হননি, এ অ্যালবাম যেনো তারই সবথেকে বড় প্রমাণ।

ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু অ্যালবামটিতে স্থান পেয়েছে মোট ১০টি গান। ১৯৭৯ সাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত দীর্ঘ সময়ে লেখা অ্যালবামের গানগুলোর কথা ও সুর করেছেন কণ্ঠশিল্পী জয়নুল আবেদীন নিজেই। আর অ্যালবামটি প্রকাশও করেছেন নিজ উদ্যোগেই।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ একই। সেখান থেকেই তুলে ধরা হয়েছে এ গানগুলো। এছাড়া এ গানগুলো নতুন প্রজন্মকে বিকৃত ইতিহাসের পরিবর্তে শেখাবে সঠিক ইতিহাস সম্পর্কে।

সভাপতি অধ্যাপক শাহজাহান আহমেদ বিকাশ বলেন, একজন শিল্পীর আবেগ অনুভূতি অনেক বড় বিষয়। সেখান থেকেই তিনি নিজেকে শিল্পী হিসেবে প্রকাশ করেছেন সঙ্গীতের মাধ্যমে। যাদের অবদানে এ দেশের জন্ম, তাদের বাদ দিয়ে গুণী এ শিল্পী তার শিল্প সৃষ্টি করেননি। এটা শিল্পী এবং দেশ, দু’টোর জন্যই অনেক বড় বিষয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ