মেয়েরা মিছিলের সামনের সারির শোভা নয়, প্রাপ্য সম্মান দিন

মেয়েদের খুব বুঝিয়ে কাউন্সিলিং করে রাজনীতিতে এনেছিলাম মার খেতে নয়। আমি খুব লজ্জিত আমার ছোট বোনগুলোর কাছে যে তোমাদের সবসময় উৎসাহ দিতাম রাজনীতি করার জন্য। তোমাদের গায়ে আজ যারা হাত তুললো তারা ছাত্রলীগে মেয়েদের রাজনীতিতে কফিনের শেষ পেরেক মারলো। আর সিনিয়র নেতারা আপনাদের গোল্ড ফিস মেমোরি না হলে ভুলে যাওয়ার কথা না কিছুদিন আগে ঢালাওভাবে মেয়েদের হলগুলোতে ছাত্রলীগের ভরাডুবি আর জনপ্রিয়তা হ্রাস সেটা কি কারনে এবার বুঝেছেন?

মেয়েদের প্রাপ্য সম্মান না দিতে পারলে তাদের রাজনীতিতে কেন আনেন? মুখে শেখ হাসিনা বলে ফেনা তুলে ফেলা ছেলেগুলোও কি পরিমাণ নিকৃষ্ট চিন্তা রাখে মেয়েদের নিয়ে সেটা নিজ চোখে দেখেছি।

মেয়েদের মিছিলের সামনের সারির শোভা বানানোর দরকার নেই; প্রাপ্য সম্মানটুকু দিন। সামনের দিনে যদি কোনদিন নির্বাচন হয় ছাত্রলীগের মেয়েদের ভোটগুলোও ছাত্রলীগ পাবেনা সেটা লিখে রাখুন। শাক দিয়ে বেশি দিন মাছ ঢেকে রাখা যায় না। মানুষ সব মেনে নেয় কিন্তু মনে নেয় না।

আপু তোমাদের এক সময় রাজনীতি করতে বলতাম; আজ বলবো পড়ার টেবিলে যাও। ক্যারিয়ারটা গুছিয়ে নেও। সবাই খুব স্বার্থপর। ভালো জায়গায় থাকলে তখন সবাই নিজের শ্বশুর বলে দাবি করবে আর হারিয়ে গেলে ঘাড়ে পাড়া দিয়ে আরো দুইহাত দাবিয়ে দিবে যেন ফিরে না আসতে পারো।

লেখক: সাবেক ছাত্রনেতা।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ