বলিউডে ২৮ বছর, প্রেম কীভাবে পেশা হলো বুঝতেই পারলাম না

শাহরুখ খান

দেখতে দেখতে আঠাশে পা। লোকাল ট্রেনের ধাক্কা খেতে খেতে ‘মন্নত’-এর বিলাসবহুল জীবন...মুখের কথা নয়! কোনও বাবা-দাদা ছিল না বলিউডে, থাকার মধ্যে অভিনয়ের প্রতি ভালবাসা, আবেগ আর মনের জোর। আর তাতেই ভর দিয়ে বলিউডে ২৮টা বছর দাপিয়ে বেড়ালেন শাহরুখ খান।

১৯৯২-এর ২৬ জুন মুক্তি পেল শাহরুখের ডেবিউ ছবি ‘দিওয়ানা’। ছিল না সিক্স প্যাক, নায়কসুলভ লুকস। এ দিকে সেই ছবিতেই সহ-অভিনেতা ঋষি কপূর, দিব্যা ভারতী। চ্যালেঞ্জটা সাহস করে নিয়েই ফেললেন এসআরকে। এর পর একে একে ‘বাজিগর’, ‘ডর... আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। বলিউড পেয়ে গেল তার ‘বাদশাহ’-কে। সে সময় বলিউডের কপূর, খানদের রমরমার বাজারে দিল্লির এক সাধারণ ছেলেকে কীভাবে যেন ভালবেসে ফেলল আম দর্শক।

বাকিটা ইতিহাস। আজ তিনি ‘কিং খান’। তবু এই স্বজনপোষণ, ফেবারিটিজমের বাজারে শাহরুখ হাতড়াচ্ছেন স্মৃতির পাতা। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘‘জানি না কী ভাবে আমার প্রেম ধীরে ধীরে আমার প্রয়োজনে পরিণত হল এবং সেখান থেকে হঠাৎ করেই পেশায় বদলে গেল, বুঝতেই পারলাম না। ২৮টা বছর... স্টিল কাউন্টিং।’’

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই যে বিতর্ক শুরু হয়েছে, তার আঁচ এসে পৌঁছেছে শাহরুখের গায়েও। সুশান্তের সঙ্গে তাঁর এক পুরনো ভিডিয়ো নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। তবু এ সবের মাঝেই শাহরুখের ‘ফিরে দেখা মুহূর্ত’ খানিক হলেও আবেগে ভাসিয়েছে ফ্যানেদের। তাঁরও কি আজ বড় বেশি মনে পড়ছে ‘ফৌজি’ দিনের কথা?


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ