কচুরিপানা থেকে ক্রাপ্ট পেপার তৈরি: খুবিতে বাণিজ্যিক সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা

নেদারল্যান্ডের ব্লু গোল্ড ইনোভেশন ফান্ডর উদ্যোগে এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) গবেষকদের সহায়তায় কচুরিপানা থেকে তৈরি উন্নতমানর ক্রাপ্ট পেপারের বাণিজ্যিক সম্ভাবনা শীর্ষক এক পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার সকাল ১০ টায় নগরীর একটি অভিজাত হোটলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খুবির উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি বলেন কচুরিপানা বাংলাদেশের অন্যতম একটি আগাছা। খাল-বিল, বাওড় বা মাঠ-ঘাটে জন্মায়। অনেক ক্ষেত্রেই এ দিয়ে তেমন কোন কাজ হয় না, বরং ফসল এবং মৎস্য উৎপাদনে প্রতিবন্ধকতা সষ্টি কর। এর থেকে অর্থনৈতিক সম্ভাবনাও আমরা এতাদিন খুঁজে পাইনি। তবে খুবির গবেষকদের সহায়তায় নেদারল্যান্ডের ব্লু গাল্ড ইনোভেশন ফান্ডের উদ্যোগে এই কচুরিপানা ব্যবহার করে উন্নতমানর ক্রাপ্ট পেপার তৈরিতে যে সাফল্য এসেছে তা খুবই আশাব্যাঞ্জক।

তিনি আরও বলেন বাণিজ্যিক ভিত্তিত ব্যবহার করতে পারলে খাল-বিলের কচুরিপানা আর ফেলনা থাকবে না এবং তা দিয় গ্রাম-গঞ্জে কুটিরশিল্প গড় উঠতে পারে। এটা আর্থিক উপার্জনের মাধ্যমও হতে পারে।

অনুষ্ঠানে জীব বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. রায়হান আলী সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নেদারল্যান্ডের ব্লু গোল্ড ইনোভেশন ফান্ডের টিম লিডার গাই জোনস।

অনুষ্ঠানের শুরুতে সূচনা বক্তব্য রাখেন এ প্রকল্পের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর খুবির ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসার্স টেকনালজি ডিসিপ্লিনর প্রফেসর ড. মাঃ নাজমুল আহসান।সরকারি- বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা এ পরামর্শ সভায় অংশগ্রহণ করন।

উল্লখ্য, ২৫ নম্বর পাল্ডার ডুমুরিয়ার থুকরা এরিয়াতে এই সমীক্ষা ও গবেষণা পরিচালিত হয়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ