দেশেই হচ্ছে খরগোশের দাঁতের সার্জারি

দেশেই হচ্ছে খরগোশের দাঁতের সার্জারি
খরগোশের দাঁতের সার্জারির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন  ডা. মো. সাদ্দাম পাটোয়ারী ও তাঁর সহকারী মিরাজুল ইসলাম।   © টিডিসি ফটো

দেশের প্রথম খরগোশের দাঁতের সার্জারিতে সফলতা অর্জন করেছেন শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) এনিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের প্রথম ব্যাচের ছাত্র পোষাপ্রাণি চিকিৎসক ডা. মো. সাদ্দাম পাটোয়ারী। ফলে নতুন সম্ভাবনা দেখছে দেশের প্রাণি চিকিৎসা।
এর মাধ্যমে খরগোশের ক্রমবর্ধমান দাঁতের বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। খরগোশ লেপরডি পরিবারের সদস্য হওয়ায় ইঁদুরের ন্যায় প্রতিনিয়ত এর দাঁত বাড়তে থাকে। ফলে তাদের প্রতিনিয়ত খড়, ঘাস বা অন্যান্য ফাইবার জাতীয় খাদ্য কেটে দাঁতের বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হলে দাঁত বৃদ্ধি পেয়ে তাদের মাড়ি পর্যন্ত পৌঁছালে খরগোশের খাবার গ্রহণ বাধাগ্রস্ত হয়। অনেক সময় খাবার গ্রহণ করতে না পারার কারণে অনেক খরগোশের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে।

সম্প্রতি খরগোশের দাঁতের এমনই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলেন বসুন্ধরা রেসিডেন্সিয়াল এলাকরা জি ব্লকের বাসিন্দা নাজ আফরিন খান। তিনি বলেন, আমার ৫ বছর বয়সের খরগোশ স্টুয়ার্টের মোলার অর্থাৎ পেছনের দাঁত গুলো বাড়তে বাড়তে তীক্ষ্ণ হয়ে গালের ও জিহ্বার ভেতরে ঢুকে গিয়েছিল। ফলে স্টুয়ার্ট কিছুই খেতে পারছিল না। ফলে দাঁত গুলো সার্জারির মাধ্যমে ছোট করার দরকার ছিল। ফলে আমি বেশ কয়েকজন প্রাণি চিকিৎসকের সাথে কথা বলেছি। কিন্তু তারা আমাকে জানায় আমাদের দেশে খরগোশের দাঁতের চিকিৎসা করা হয় না। এরপর আমি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে যাবার চিন্তা করছিলাম কিন্তু তার আগে ডা. সাদ্দামের কাছে আসি। এরপর বিদেশী বিভিন্ন ডাক্তারদের সাহায্য নিয়ে তিনি আমার স্টুয়ার্টের দাঁতের সফল সার্জারি করেছেন।

খরগোশের দাঁতের সার্জারি 

 

এ বিষয়ে ডা. সাদ্দাম বলেন, আমাদের দেশে এ ধরনের সমস্যায় শুধুমাত্র খরগোশের সামনের দাঁতগুলো কাটা হতো। কিছু পেছনের দাঁতগুলোর জন্য কোন ব্যবস্থা নেয়া হতো না, আর এই সার্জারি করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিরও অভাব ছিল সে জন্য মানুষের দাঁতের চিকিৎসায় ব্যবহৃত কিছু যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হয়েছ। বিদেশী কিছু ডাক্তারের পরামর্শে আমি ও আমার সহকারী মিরাজুল ইসলাম প্রায় একঘন্টায় সার্জারিটি সম্পন্ন করি এবং দেড়ঘন্টা পর খরগোশটির জ্ঞান ফেরে।
বর্তমানে খরগোশটি সুস্থ আছে বলে জানান খরগোশটির মালিক আফরিন খান।


মন্তব্য

x