৫০০ কোটি টাকা প্রণোদনা চান নন-এমপিও শিক্ষকরা

  © ফাইল ফটো

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দেশের সব ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা। ফলে নিজেদের জীবিকা নির্বাহের স্বার্থে ৫০০ কোটি টাকা সুদমুক্ত ঋণ বা প্রণোদনা চেয়েছেন নন-এমপিও কলেজ শিক্ষকরা।

আজ মঙ্গলবার (১২ মে) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর নন-এমপিও কলেজ টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন (এনসিটিএ) এক স্মারকলিপি দিয়ে এ দাবি জানিয়েছেন। সংগঠনের আহবায়ক অধ্যক্ষ মো. শাহাদাত হোসেন এবং সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মো. আসাদুজ্জামান শিক্ষকদের পক্ষে এ স্মারকলিপি প্রেরণ করেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, দেশে সরকারি ও এমপিওভুক্ত কলেজের পাশাপাশি জাতি গঠনে কাজ করছেন প্রায় তিন হাজার নন-এমপিও কলেজের লক্ষাধিক শিক্ষক-কর্মচারি। তাদের আয়ের একমাত্র উৎস শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি থেকে প্রাপ্ত টাকা। আর অধিকাংশ কলেজই ভাড়া বাড়িতে অবস্থিত।

বর্তমান পরিস্থিতিতে আয়ের পথ সীমিত হওয়ায় অভিভাবকরা ছেলেমেয়েদের শিক্ষা ব্যয় বহন করতে পারছেন না উল্লেখ করে তারা বলেন, টিউশন ফি আদায় না হওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের বাড়ি ভাড়া, শিক্ষক-কর্মচারিদের বেতন এবং অন্যান্য ব্যয় নির্বাহ করতে পারছি না।

তারা আরো বলেন, প্রায় দুই মাস ধরে প্রতিষ্ঠান বন্ধ, এ দুর্যোগ কবে শেষ হবে তা নিশ্চিত নই। বর্তমানে আমরা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছি। চলছে রমজান মাস, না পারছি কারো কাছে হাত পাততে, না পারছি পরিবারের ন্যূনতম চাহিদা পূরণ করতে।

এ অবস্থায় দান নয়, সহযোগিতা চান উল্লেখ করে তারা বলেন, যতদিন প্রতিষ্ঠান খোলার অবস্থা তৈরি না হবে, ততদিন পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানের ব্যয় নির্বাহ করার জন্য ৫০০ কোটি টাকা সুদমুক্ত ঋণ বা প্রণোদনা দিয়ে আমাদের জীবনমান টিকিয়ে রাখার বিনীত আবেদন করছি।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ