বাবাকে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন পড়ুয়া ছেলের

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার সাতক্ষীরা আলিয়া কামিল মাদ্রাসার ফাজিল দ্বিতীয়বর্ষের ছাত্র জাফর আহমদ। তার পিতা মাওলানা উসমান গনী নানান জটিল রোগে আক্রান্ত। তার চিকিৎসায় ইতোমধ্যে সব সহায়-সম্মতি বিক্রি করে দিয়েছেন। এখন নিরুপায় হয়ে সমাজের বিত্তবানদের নিকট সাহায্যের জন্য আবেদন জানিয়েছেন।

জাফর জানিয়েছেন, তার পিতা মাওলানা উসমান গনী গত দেড় বছর খুবই অসুস্থ। তিনি ১৯৯২ সালে দারুল উলুম মইনুল ইসলাম হাটহাজারী আরবী বিশ্ববিদ্যালয় হতে দাওরা হাদীস (মাস্টার্স) ফারেগ হয়েছেন। দীর্ঘদিন যাবৎ মসজিদের ইমাম ও খতিব ছিলেন এবং কওমী মাদ্রাসাতেও খেদমত করেছেন।

তার জীবন ইসলাম ও দ্বীনের মেহনতে অতিবাহিত হয়েছে। কিন্তু, এখন তিনি শয্যাশায়ী। ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি, লিভার সিরোসিস এবং হাটুর সমস্যায় আক্রান্ত তিনি। হাটা চলা করতে ক্রেচ ব্যবহার করেন। তার চিকিৎসার জন্য ইতিমধ্যে ৬/৭ লাখ টাকা খরচ হয়ে গেছে। বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয় স্বজনসহ বাবার পরিচিত লোকজন সাহায্য সহযোগিতা করেছেন।

ইতোমধ্যে শেষ সম্বল ভিটা বাড়িটিও তার চিকিৎসার ব্যায়ভার বহন করার জন্য বিক্রি করে দিয়েছেন। নিজের বাড়িতেই এখন তারা ভাড়ায় থাকেন। বাড়ি বিক্রির টাকা দিয়ে এতদিন চিকিৎসার ভার বহন করে আসছি। কিন্তু আর সম্ভব হচ্ছেনা। ডাক্তার বলেছেন উন্নত চিকিৎসার জন্য এখনো অনেক টাকা প্রয়োজন। কিন্তু এতো টাকা বহন করার মতো সমার্থ তাদের নেই।

তার প্রত্যেক মাসে ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা টাকার মত ওষুধ খরচ হয়। পরিবারের উপার্জনের একমাত্র মাধ্যম ছিলেন মাওলানা উসমান গনী। এজন্য একজন শিক্ষার্থী হয়ে দেশবাসী ও সমাজের দানশীল মানুষের কাছে তার বাবার চিকিৎসার জন্য এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন জাফর।বাবার জন্য সবার কাছে সন্তান হয়ে সাহায্য প্রার্থনা করেছেন তিনি।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-

জাফর আহমদ
মোবাইল : ০১৯২৯৬৪০২৬১(বিকাশ পার্সোনাল)
ব্যাংক হিসাব নং-২৮৯৯০১০০১৬৫৭১
রুপলি ব্যাংক, সাতক্ষীরা কর্পোরেট শাখা, সাতক্ষীরা।


মন্তব্য