করোনার ঝুঁকিতে চোখও, বাঁচতে যা করবেন

করোনা ভাইরাসের মৃত্যু মিছিল থামছে না। এই প্রাণঘতী ভাইরাসটি শুধুমাত্র নাক ও মুখের মাধ্যমে ছড়ায় এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। করোনা ছড়ানোর মাধ্যম হতে পারে মানুষের চোখও। একারণে চোখকেও করোনা থেকে রক্ষার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। মনে রাখতে হবে মাস্ক পরা সত্ত্বেও মনের অজান্তে যখন-তখন চোখে হাত দেওয়ার কারণে অসংখ্য মানুষ করোনাভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হয়।

নভেল করোনা ভাইরাস যেভাবে সংক্রমণ ঘটে: ভাইরাসটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রে চোখের পানির সঙ্গে এই ভাইরাস চোখের নেত্রনালি হয়ে সরাসরি নাকে প্রবেশ করে এবং সেখান থেকে শ্বাসতন্ত্রে যায় এবং সংক্রমণ শুরু করে। এছাড়াও আক্রান্ত ব্যক্তি নিজ চোখ কচলে যেখানে হাত দেবে সেখানে রয়ে যাবে অসংখ্য করোনা জীবাণু।

করোনায় আক্রান্তের লক্ষণ: শুকনা কাশি, জ্বর, শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি চোখ সংক্রমিত হলে যেসব লক্ষণ প্রকাশ পায় তা হলো- চোখের মিউকাস পর্দার প্রদাহ বা কনজাংটিভাইটিস। চোখ লাল বা গোলাপি বর্ণ ধারণ করা। চোখ লাল হয়ে পানি ঝরা এবং চোখ চুলকানো।

বাঁচতে হলে করণীয়: কন্টাক্ট লেন্স যারা পরেন তারা যেন হাত বেশি বেশি পরিষ্কার রাখেন। লেন্স খোলা বা পরার সময় অবশ্যই হাত জীবাণুমুক্ত করে নিতে হবে। যেকোনো উপায়ে হাত যেন চোখে-মুখে না যায় সে ব্যাপারে সচেতন হতে হবে। নিতান্তই চোখে হাত দিতে হলে টিস্যু পেপার ব্যবহার করা।

বাইরে বের হলে মাস্ক ও চোখ ঢাকে এ রকম গগলস (চশমা) পরা। বাইরে থেকে ঘরে ঢুকে উষ্ণ গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলা বা সাবান দিয়ে গোসল করা, কাপড়চোপড় কেচে ফেলা। বারবার ক্ষারযুক্ত সাবান দিয়ে সর্বনিম্ন ২০ সেকেন্ড হাত ধোয়া। চিকিৎসকদের রোগী ব্যবস্থাপনার সময় ফেস শিল্ড ব্যবহার করা।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ