অ্যামাজনের ধোঁয়ায় ব্রাজিলে ফুটবল ম্যাচ স্থগিত

অ্যামাজনের ধোঁয়ায় ব্রাজিলের ফুটবল ম্যাচ বন্ধ  © সংগৃহীত

আগুনে উজাড় হচ্ছে পৃথিবীর ফুসফুস খ্যাত অ্যামাজন জঙ্গল। আগুনের সর্বগ্রাসী তাণ্ডবে ছাই হচ্ছে পৃথিবীর মোট অক্সিজেনের ২০ শতাংশ সরবরাহকারী অ্যামাজন। আশেপাশে অনেক দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছে এর ধোঁয়া। যার প্রভাব পড়েছে ব্রাজিলের ফুটবলে।

রিও ব্রাঙ্কোতে স্টেডিয়ামে ব্রাজিলের তৃতীয় বিভাগের একটি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল অ্যাতলেটিকো অ্যাক্রেয়ানো এবং লুভারডেনসে। এক সময় ম্যাচটি ধোঁয়ার কারণে বন্ধ করে দেওয়া হয়। অতিরিক্ত ধোঁয়ায় খেলোয়াড়রা নি:শ্বাস নিতে পারছিলেন না। ফলে ম্যাচের রেফারিরা প্রায় সাত মিনিট খেলা বন্ধ রাখেন। এ সময় স্টেডিয়ামে আসা অনেকেই স্থান ত্যাগ করেন।

ম্যাচ শুরুর আগে স্টেডিয়াম কিংবা এর আশেপাশে কোনো ধোঁয়া ছিল না। যদিও আগাম সতর্কতা হিসেবে মাঠে অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। তবে, সেই অ্যাম্বুলেন্স আসতেই ১৫ মিনিট দেরিতে খেলা শুরু হয়। ম্যাচ শুরুর ৬ মিনিট পর স্টেডিয়ামটি পুরোটা ঢেকে যায় ধোঁয়ায়। পরে ম্যাচ আবারো মাঠে গড়ালে অ্যাতলেটিকো অ্যাক্রেয়ানো ৩-২ গোলে জেতে।

এ বছর এখন পর্যন্ত অ্যামাজন জঙ্গলে প্রায় ৭৫ হাজার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। যার ব্যাপ্তি অ্যামাজানের অর্ধেকেরও বেশি এলাকা জুড়ে। ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র জানিয়েছে এই অগ্নিকাণ্ডের সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ৮৪ শতাংশ বেশি।

এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা (নাসা) তাদের এক টুইটে জানিয়েছে, অ্যামাজন থেকে আসা ধোঁয়ার কারণে ব্রাজিলের বিভিন্ন প্রদেশের আকাশ কালো হতে শুরু করেছে। এর আগে গত ১৯ আগস্ট ব্রাজিলের রাজধানী সাও পাওলো দিনের বেলায় এক ঘণ্টা ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছিল। সেই ধোঁয়ার উৎপত্তি ছিল রাজধানী থেকে ২৭০০ কিলোমিটার দূরের অগ্নিকাণ্ড।

অ্যামাজন দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের বিভিন্ন দেশের অংশ রয়েছে তবে এর তিনভাগের দুই ভাগই ব্রাজিলে। তাই ব্রাজিল সরকারের গৃহীত বিভিন্ন নীতিকেই অগ্নিকাণ্ডের কারণ বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। ব্রাজিলের বর্তমান প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো চলতি বছরের জানুয়ারিতে দায়িত্ব গ্রহণের পরই রেকর্ড সংখ্যক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে অ্যামাজনে। পরিবেশবাদীদের দাবি, বন সংরক্ষণে অতীতের সরকারগুলোর নীতির বিপরীতে অবস্থান নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বলসোনারো। তবে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো সন্দেহ করছেন বন উজাড় করতে এনজিও গুলো অ্যামাজন জঙ্গলে গিয়ে আগুন ধরাচ্ছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ