অধ্যক্ষ শূন্য দেশের ৯৫ সরকারি কলেজ

প্রতীকী ছবি

অধ্যক্ষ নেই দেশের ৯৫ টি সরকারি কলেজে। কয়েকটি কলেজে সিনিয়র শিক্ষকরা নামকাওয়াস্তে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের কাজ চালাচ্ছেন। দীর্ঘদিন ধরে অধ্যক্ষ পদ শূন্য থাকায় কলেজগুলোতে শিক্ষার মান ব্যহত হচ্ছে। ব্যহত হচ্ছে অ্যাকাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত বছর ২৯৬টি কলেজ সরকারিকরণের প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রতিটি উপজেলায় একটি করে স্কুল ও কলেজ সরকারি করার প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে এসব কলেজকে সরকারি করা হয়। কিন্তু সরকারিকৃত এসব কলেজের ৯৫টিতেই নেই অধ্যক্ষ। কয়েকটি কলেজ চলছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে। 

সদ্য সরকারিকৃত কলেজেগুলাের মধ্যে রাজশাহী অঞ্চলের ১৩ টি প্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ পদ শূন্য রয়েছে। এগুলো হলো- বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ এম এইচ মহাবিদ্যালয় ডিগ্রী কলেজ,কাহালু ডিগ্রি কলেজ, ধুনট ডিগ্রি কলেজ, নওগাঁর মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল সরকারি ডিগ্রী কলেজ, ধামইরহাট এম এম সরকারি ডিগ্রি কলেজ, পোরশা সরকারি ডিগ্রি কলেজ, পাবনার সরকারি সাঁথিয়া ডিগ্রি কলেজ, আটঘরিয়া সরকারি কলেজ, সরকারি মোহাম্মদ ইয়াছিন ডিগ্রী অনার্স কলেজ, রাজশাহী শাহদৌলা সরকারি কলেজ, সরদহ সরকারী ডিগ্রী কলেজ, সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী সরকারি ডিগ্রী কলেজ ও সরকারি হাজী কোরাস আলীমেমোরিয়াল কলেজ।

খুলনা অঞ্চলের সদ্য সরকারিকৃত ৯টি কলেজে অধ্যক্ষ নেই। কলেজগুলাে হল- খুলনা জেলার পাইকগাছা কলেজ, যশোরের কেশবপুর ডিগ্রি কলেজ, চৌগাছা ডিগ্রি কলেজ, শহীদ মশিউর রহমান ডিগ্রী কলেজ, বাগেরহাটের সিরাজ উদ্দিন মেমােরিয়াল কলেজ, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু মহিলা মহাবিদ্যালয়, ঝিনাইদহ মাহতাব উদ্দিন ডিগ্রী কলেজ, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজ এবং মাগুরার বীর মুক্তিযােদ্ধা আসাদুজ্জামান কলেজ।

বরিশাল অঞ্চলে অধ্যক্ষ নেই ১১টি সদ্য সরকারি কলেজে। এগুলাে হচ্ছে- বরিশালের সরকারি হিজলা ডিগ্রী কলেজ, সরকারি আবুল কালাম কলেজ, সরকারি শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত ডিগ্রী কলেজ, পটুয়াখালীর সুবিদখালী সরকারি ডিগ্রী কলেজ, সরকারি আব্দুর রশিদ তালুকদার কলেজ, পিরােজপুরের সরকারি কাউখালী মহাবিদ্যালয়, ঝালকাঠির সরকারি নলছিটি ডিগ্রী কলেজ, ভােলার দৌলতখান সরকারি আবু আব্দুল্লাহ কলেজ, সরকারি আব্দুল জব্বার কলেজ, তজুমদ্দিন সরকারি কলেজ এবং বরগুনার তালতলিসরকারি কলেজ।

কুমিল্লা অঞ্চলের অধ্যক্ষ না থাকা ৯টি সদ্য সরকারি কলেজ হলাে- কুমিল্লা জেলার শ্রীকাইল কলেজ, মানিকারচর বঙ্গবন্ধু কলেজ, দোল্লাই নােয়ারপুর ডিগ্রী কলেজ, লালমাইডিগ্রী কলেজ, হাসান মেমােরিয়াল ডিগ্রী কলেজ, ফিরােজ মিয়া ডিগ্রী কলেজ, চাঁদপুরেরমতলব ডিগ্রি কলেজ, কোরফুল্লেনেসা মহিলা কলেজ ও হাজিরহাট উপকুল কলেজ।

রংপুর অঞ্চলে অধ্যক্ষ শূন্য ১৩টি সদ্য সরকারি কলেজ । এগুলাে হলাে- রংপুর জেলার পীরগাছা সরকারি কলেজ, গংগাচড়া সরকারি কলেজ, গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর সরকারিকলেজ, ফুলছড়ি সরকারি কলেজ, গােবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজ, কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরীসরকারি কলেজ, চিলমারী সরকারি কলেজ, লালমনিরহাটের সরকারি করিম উদ্দিন পাবলিক কলেজ, নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি কলেজ, জলঢাকা ডিগ্রী কলেজ,দিনাজপুরের চিরিরবন্দর সরকারি কলেজ, হাকিমপুর সরকারি ডিগ্রী কলেজ এবং পঞ্চগড় উপজেলার পাথরাজ সরকারি কলেজ।

সিলেট অঞ্চলে সদ্য অধ্যক্ষ না থাকা সরকারিকৃত ৯টি কলেজ হলাে- সিলেট জেলার বিশ্বনাথ সরকারি কলেজ, ফেঞ্চুগঞ্জ সরকারি কলেজ, মদন মোহন সরকারি কলেজ,হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ সরকারি কলেজ, লাখাই সরকারি কলেজ, আলিফ সোবহান চৌধুরী সরকারি কলেজ, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর সরকারি কলেজ, দিরাই সরকারি কলেজ এবংমৌলভীবাজারের বড়লেখা সরকারি কলেজ।

ঢাকা অঞ্চলের সদ্য সরকারিকৃত ৮টি কলেজে অধ্যক্ষ পদটি শূন্য রয়েছে। কলেজেগুলাে হলাে-ঢাকার সাভার সরকারি কলেজ, সরকারি ইস্পাহানী কলেজ, সরকারি পদ্মা কলেজ,সরকারি দোহার নবাব কলেজ, মানিকগঞ্জ সরকারি সিংগাইর ডিগ্রী কলেজ, মতিলালডিগ্রী কলেজ, গাজীপুরের শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজ এবংশরীয়তপুর সরকারি শামসুর রহমান কলেজ।

চট্টগ্রাম অঞ্চলে সদ্য সরকারিকৃত ১৩টি কলেজে অধ্যক্ষ নেই। প্রতিষ্ঠানগুলাে হলাে- চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড সরকারি কলেজ, আনোয়ারা সরকারি কলেজ, হাটহাজারী সরকারি কলেজ, রাউজান সরকারি কলেজ, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া সরকারি কলেজ, টেকনাফ সরকারি ডিগ্রী কলেজ, রাঙ্গামাটি কাচালং সরকারি ডিগ্রী কলেজ, কাউখালী সরকারি ডিগ্রী কলেজ, খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি সরকারি কলেজ, মাটিরাঙ্গা সরকারি কলেজ,মানিকছড়ি গিরি মৈত্রী সরকারি কলেজ, বান্দরবান রুমা সাঙ্গু সরকারি কলেজ এবং ফেনী ইকবাল মেমোরিয়াল সরকারি ডিগ্রী কলেজ।

ময়মনসিংহ অঞ্চলের ১০টি সদ্য সরকাৱিকৃত কলেজে অধ্যক্ষ নেই। এগুলাে হলাে- ময়মনসিংহ জেলার ভেলগাভী সরকারি কলেজ, ফুলপুর সরকারি কলেজ, ধনবাড়ী সরকারিকলেজ, কিশোরগঞ্জ কটিয়াদী সরকারি কলেজ, বাজিতপুর সরকারি কলেজ, তাড়াইল মুক্তিযোদ্ধা সরকারি কলেজ, সরকারি নাজমুল স্মৃতি কলেজ, সরকারি একে মেমোরিয়াল ডিগ্রী কলেজ, শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজ এবং ধোবাউড়া সরকারি কলেজ।

সরকারিকৃত কলেজ শিক্ষক সমিতির নেতা হাবিবুর রহমানের বলেন, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারের কতিপয় জামাত-বিএনপিপন্থী কর্মকর্তাদের মামলা-মোকদ্দমা এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা অধিদপ্তরের কতিপয় কর্মকর্তার অসহযোগীতায় সরকারিকরণের প্রজ্ঞাপন জারি ও পদসৃজনে অসম্ভব দেরি হয়েছে ও হচ্ছে।  কয়েকটি কলেজের বেসরকারি আমল থেকে মামলাজনিত কারণে অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়া সম্ভব হয়নি। 

শিক্ষা অধিদপ্তরের একজন পরিচালক বলেন, এসব কলেজে সাময়িকভাবে ডেপুটেশনে শিক্ষা ক্যাডারের সিনিয়র কর্মকর্তাদের অধ্যক্ষ পদে পদায়ন দেয়া যায়। 


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ